kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কুপ্রস্তাবে অমত, গৃহবধূকে মারধর করলেন ইউপি সদস্য

বরগুনা প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০২:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুপ্রস্তাবে অমত, গৃহবধূকে মারধর করলেন ইউপি সদস্য

অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক গৃহবধূকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে বরগুনা সদর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য মো. পনু মৃধার বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার দুপুরে বরগুনা প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ওই গৃহবধূর স্বামী এ অভিযোগ করেন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই গৃহবধূও একই অভিযোগ করেন। তার বাড়ি একই ইউনিয়নের ঢলুয়া গামে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ইউপি সদস্য পনু মৃধা।

সংবাদ সম্মেলনে গৃহবধূর স্বামী বলেন, তিনি একজন দিনমজুর। সে কারণে বিভিন্ন সময় রাজধানী ঢাকাসহ তার বাইরেই থাকতে হয়। সে ফাঁকে স্থানীয় ইউপি সদস্য পনু মৃধা তার স্ত্রীকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। একইভাবে বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার ঘরে এসে অনৈতিক প্রস্তাব দেয়। তার স্ত্রী এতে রাজি না হওয়ায় ধ্বস্তাধস্তির এক পর্যায়ে মারধর করে। এতে তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারাত্মক যখম হলে রাতেই বরগুনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ইউপি সদস্য পনু মৃধা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় তার ভয়ে কেউ কিছু বলতে পারে না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকা একই ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য মো. আনছার আলী হাওলাদার বলেন, ইউপি সদস্য পনু মৃধার বিরুদ্ধে এর আগেও এ ধরনের ঘটনায় সালিস মীমাংসা করা হয়েছে। কিন্তু সে কোনো ভাবেই ঠিক হয় না। তাই সামাজিক ও আইনিভাবে এসব কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

তবে ইউপি সদস্য পনু মৃধা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তার প্রতিপক্ষরা শত্রুতামূলকভাবে ওই মহিলাকে দিয়ে এসব মিথ্যা অভিযোগ ছড়াচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, ওই মহিলাদের সাথে প্রতিবেশী এক গ্রুপের গাছ নিয়ে বিবাধ রয়েছে। সে ঘটনায় বুধবার রাতে দুই পক্ষের মধ্যে ঝামেলা হয়। পরে তিনি সেখানে মীমাংসা করতে গিয়েছিলেন মাত্র।

বরগুনা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. আব্দুর রহমান জানান, নিযাতিত ওই গৃহবধূর মাথায় এবং শরীরে বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন এবং ফোলা যখম রয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা