kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আবরারের শোকে ভেসে গেল লালন উৎসব

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ০১:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আবরারের শোকে ভেসে গেল লালন উৎসব

কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ার বাউল সম্রাট ফকির লালনের ১২৯তম তিরোধান দিবস উপলক্ষে তিন দিনের উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি শুরুতেই কুষ্টিয়া-৩ আসনের সাংসদ ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ আবরার প্রসঙ্গ তোলায় পুরো লালন উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শোকের সাগরে ভেসে যায়।

শুরুতেই মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন। আমি আজ অত্যন্ত ভারাক্রান্ত হৃদয়ে এখানে লালন উৎসবে এসেছি। মাত্র কদিন আগে বুয়েটের শিক্ষার্থী আমাদের এলাকার ছেলে আবরার ফাহাদ তারই কয়েকজন সহপাঠি সবচেয়ে মেধাবী তরুণ ছাত্রের হাতে নির্মমভাবে নিহত হয়েছে। কি অবাক কাণ্ড! আমি তার মায়ের বুকফাটা কান্না জড়ানো মুখটিকে কোনোভাবেই ভুলতে পারছি না।  

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আমাদের এই শিক্ষা কোনো কাজে লাগছে? সুফি সাধক লালন তার কোনো শিক্ষা ছিল না। অথচ জীবন দর্শনের জন্যে তার যে ভাবনা তার যে উপদেশ তা মানুষের জন্যে এর চেয়ে আর বড় কিছু হতে পারে না।

তিনি বলেন, এটা আজকে পরিস্কার হয়ে গেছে যে, বিশ্ববিদ্যালয় বা কলেজের পাঠ্যপুস্তক দিয়েই একজন মানুষ প্রকৃত মানুষ হচ্ছে না। একজন প্রকৃত মানুষ হতে হলে লালন শাহের সোনার মানুষ হতে হবে।

এ সময় পুরা উৎসব এলাকায় শোকের আবহ ছড়িয়ে পড়ে এবং দর্শক বাউল ও সাধুরা পিন পতন নিরব হয়ে যান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা