kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাঘায় ইউপি নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষে আহত ২

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাঘায় ইউপি নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষে আহত ২

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচিত মেম্বর প্রার্থী ও পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে দুজন আহত হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আজ বুধবার (১৬ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে মনিগ্রাম মাদরাসা মোড়ে।

জানা যায়, ১৪ অক্টোবর বাঘা উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে টিউবয়েল প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন আনোয়ার হোসেন। অপরদিকে ফুটবল প্রতীক নিয়ে পরাজিত হয়েছেন ফরমান আলী। পরাজিত ফরমান আলীর ভাই জয়নাল আলীর মনিগ্রাম মাদরাসা মোড়ে ফার্নিচারের দোকান রয়েছে। বুধবার সকালে এ দোকানের কর্মচারী আলাউদ্দিন কাজে আসেন। এ সময় দোকান মালিক জয়নাল আলী কর্মচারী আলাউদ্দিন ভোট দেয়নি বলে চার্জ করে। এতে উভয়ের মধ্যে তর্কবিতর্ক শুরু হয়। এক পর্যায়ে মারধর করে কর্মচারী আলাউদ্দিনকে। এতে তিনি আহত হয়েছে। কর্মচারীকে মারতে গিয়ে মালিক জয়নাল আলীও আহত হয়।

এ ঘটনায় এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উভয়ে স্থানীয় মসজিদের মাইকে লাঠিসোঠা নিয়ে বের হওয়ার জন্য প্রচার করতে থাকে। এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করতে থাকে। তবে সংঘর্ষ বাধার আগে বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। অপরদিকে চারঘাট থানার পুলিশও খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসলে উভয়ে লাঠসোঠা নিয়ে স্থান ত্যাগ করেন। তবে এ সময় পরাজিত প্রার্থীর সমর্থক আব্দুল খালেক নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। আটক ব্যক্তি মনিগ্রাম পূর্বপাড়ার আবুল কাসেমের ছেলে। উভয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ততরা বলে জানা গেছে।

বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়ার পরপর উভয়ে স্থান ত্যাগ করে চলে গেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকা শান্ত রয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা