kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পাকুন্দিয়ায় বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার রাস্তায় বাঁশের বেড়া

পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ১৫:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাকুন্দিয়ায় বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার রাস্তায় বাঁশের বেড়া

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার ১৬৮ নম্বর বরাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার রাস্তার মাথায় বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন একই এলাকার ইমরান হোসেন নামের এক ব্যক্তি। এতে বিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থী দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। 

সরেজমিনে বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয়ে যাওয়ার রাস্তার মাথায় বাঁশের খুঁটি দিয়ে বেড়া দিয়ে আটকে দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, উপজেলার বরাটিয়া গ্রামের আবদুল হাইয়ের ছেলে মো. ইমরান হোসেন এ কাজটি করেছেন। এতে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথটি সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে গেছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পাশের বাড়ির ভেতর দিয়ে যাওয়া-আসা করছে।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৬ সালে আবদুস ছোবহান মাস্টার ৩৩ শতাংশ জায়গার ওপর বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১৩ সালে বিদ্যালয়টি সরকারি করা হয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১১০ জন। বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই ওই জায়গা দিয়ে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়া করতো। কিন্তু হঠাৎ করে গত এক মাস আগে ইমরান হোসেন রাস্তার মাথায় বাঁশের বেড়া দিয়ে রাস্তাটি বন্ধ করে দেন। 

অভিযুক্ত ইমরান হোসেন স্বীকার করে বলেন, আমার নিজস্ব জায়গায় এ বেড়া দেওয়া হয়েছে। বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা আমার জায়গার ওপর দিয়েই যাওয়া-আসা করতো। বিদ্যালয়ের স্বার্থে জায়গাটি এজবদল করার জন্য আমি প্রতিষ্ঠাতাকে একাধিকবার বলেছি। কিন্তু তিনি এজবদল করতে রাজি নন। তাই আমি বাধ্য হয়ে আমার জায়গায় বেড়া দিয়েছি। 

বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আবদুস ছোবহান মাস্টার বলেন, বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো.নাহিদ হাসান বলেন, বিদ্যালয়ের জায়গাটি সার্ভেয়ার দিয়ে মাপা হবে। মাপার পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা