kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

‘নতুন ট্রেনের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হওয়ায় উচ্ছ্বসিত উত্তরাঞ্চলবাসী’

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নতুন ট্রেনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

রংপুর অফিস ও আঞ্চলিক প্রতিনিধি, রংপুর   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ১৪:৪২ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



‘নতুন ট্রেনের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হওয়ায় উচ্ছ্বসিত উত্তরাঞ্চলবাসী’

ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর আন্তনগর ট্রেন উদ্বোধনের সময় রংপুর স্টেশনে উপস্থিত ছিলেন যারা। ছবি- কালের কণ্ঠ

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রংপুর, লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম থেকে সরাসরি ঢাকায় চলাচলের আন্তনগর ট্রেনের উদ্বোধন করেছেন। একই সময় ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা পিটি ইনকার কোচে নতুন দুটি ট্রেনের প্র্রতিস্থাপিত র‌্যাক উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন উত্তরাঞ্চলের অসংখ্য মানুষ।

আজ বুধবার দুপুর ১২ টার কিছুক্ষণ পর গণভবন থেকে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পতাকা নাড়িয়ে ও হুইসেল বাজিয়ে রংপুর, লালমনিরহাট থেকে নতুন কোচ ও কুড়িগ্রাম থেকে আন্তুনগর ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

ট্রেনটি উদ্বোধনকালে রংপুর প্ল্যাটফরমে স্থাপন করা মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন, রংপুর-২ (বদরগঞ্জ-তারাগঞ্জ) আসনের এমপি আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছাফিয়া খানম, পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার। এ ছাড়াও রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আব্দুল আলীম, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের প্রকৌশল বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আফজাল হোসেন, অতিরিক্ত প্রধান (পরিকল্পনা) আজিজুর রহমানসহ সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু করবে। ট্রেনটি গন্তব্যস্থান থেকে পৌঁছা পর্যন্ত মোট আটটি স্টেশনে স্টপেজ দেবে।

অবশেষে উত্তরাঞ্চলবাসীর বহুল প্রত্যাশিত কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন এ অঞ্চলের মানুষ। ইতিমধ্যে পরীক্ষামুলকভাবে ট্রেনটি নির্দিষ্ট পথে চলাচল সম্পন্ন করেছে। উদ্বোধনের পর থেকে নিদিষ্ট স্টেশনগুলো থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হবে।

জানা যায়, ট্রেনটি প্রতিদিন কুড়িগ্রাম থেকে সকাল ৭টা ২০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। ঢাকায় পৌঁছাবে বিকেল ৫টা ২৫ মিনিটে। ঢাকা থেকে ওই দিনই রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে ছেড়ে সকাল ৬টা ২০ মিনিটে কুড়িগ্রাম পৌঁছাবে।

এ বিষয়ে পার্বতীপুর রেলস্টেশন মাস্টার জিয়াউল আহসান জানান, নতুন ট্রেনটি কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে এসে রংপুর ও বদরগঞ্জ রেলস্টেশন দাঁড়াবে। এরপর পার্বতীপুর এসে ডুয়েল গেজ রেলপথে জয়পুরহাট, মাধনগর ও নাটোর হয়ে ঢাকায় গিয়ে পৌঁছবে। ফিরতি পথে একইভাবে পার্বতীপুর হয়ে এ ট্রেন কুড়িগ্রাম গিয়ে পৌঁছবে।

ট্রেনটি উদ্বোধনে উত্তরের জেলা রংপুর ও কুড়িগ্রামবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি এবার পূরণ হয়েঠে। ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানিকৃত নতুন পিটি ইনকা লাল-সবুজ কোচ দিয়ে ট্রেনের রেক সাজানো হয়েছে। নির্ধারিত হয়েছে সময়সূচি।

ট্রেনটির শোভন চেয়ারের ভাড়া ৫১০ টাকা, এসি চেয়ার ৯৭২ টাকা, এসি সিট ১১৬৮ টাকা এবং এসি বার্থ ১৭৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

ট্রেনের সময়সূচি-

সকাল ৭:২০ মিনিটে কুড়িগ্রাম থেকে যাত্রা শুরু করবে ট্রেনটি। এরপর রংপুর ৮:২৯ মিনিটে এসে দোলনচাঁপা এক্সপ্রেসের সঙ্গে ক্রসিং করে ৮:৩৭ মিনিটে ছেড়ে যাবে। বদরগঞ্জ আসবে সকাল ০৯:০১ এ,ছেড়ে যাবে ০৯:০৩ এ। পার্বতীপুর আসবে সকাল ০৯:৩০ এ,ছেড়ে যাবে সকাল ০৯:৫০ এ। জয়পুরহাট আসবে সকাল ১০:৪৯ এ,ছেড়ে যাবে ১০:৫২। সান্তাহার আসবে সকাল ১১:৩৫ এ,ছেড়ে যাবে ১১:৪০ এ। মাধনগর আসবে দুপুর ১২:১০ এ,ছেড়ে যাবে ১২:১২ এ। ১৫:১০ মিনিটে টাঙ্গাইল এসে বনলতা এক্সপ্রেসের সঙ্গে ক্রসিং স¤পন্ন করে ১৫:১৯ মিনিটে ছেড়ে যাবে। মৌচাকে ১৬:০৩ মিনিটে সিল্কসিটির সঙ্গে ক্রসিং করে ১৬:০৯ মিনিটে ছেড়ে যাবে। টাঙ্গাইল এবং মৌচাকে কোনো কমার্শিয়াল স্টপেজ নেই। শুধু ক্রসিংয়ের জন্য দাঁড়াবে। এরপর ট্রেনটি ১৬:৫০ মিনিটে বিমানবন্দর পৌঁছে গন্তব্য স্টেশন ঢাকায় যাবে ১৭:২৫ মিনিটে। এরপর কুড়িগ্রাম অভিমুখে রাত রাত ২০:৪৫ মিনিটে ঢাকা স্টেশন ছেড়ে যাবে ট্রেনটি। বিমানবন্দর আসবে রাত ২১:১২ তে,ছেড়ে যাবে ২১:১৭ তে। এরপর রাত ১২:৪৭ মিনিটে আব্দুলপুরে নীলসাগর এবং ০১:১২ মিনিটে নাটোরে রংপুর এক্সপ্রেসের সঙ্গে ক্রসিং করবে। এই দুটি কমার্শিয়াল স্টপেজ নয়। মাধনগর আসবে রাত ১:৪১,ছেড়ে যাবে রাত ০১:৪৩। সান্তাহার আসবে রাত ০২:১১, ছেড়ে যাবে ০২:১৫ মিনিটে। এখানে ৭০৬ একতা এক্সপ্রেসের সঙ্গে ক্রসিং স¤পন্ন হবে। জয়পুরহাট আসবে রাত ০২:৫০,ছেড়ে যাবে রাত ০২:৫৩ এ। পার্বতীপুর আসবে রাত ৪টায়,ছেড়ে যাবে রাত ০৪:১০ এ। বদরগঞ্জ পৌঁছবে ভোর ০৪:২৭, ছেড়ে যাবে ০৪:২৯ মিনিটে। এরপর ভোর ০৪:৫৫ মিনিটে রংপুর পৌঁছে ০৫:০৩ এ ছেড়ে যাবে। ভোর ৬:১৫ মিনিটে শেষ গন্তব্য স্টেশন কুড়িগ্রাম পৌঁছবে ট্রেনটি।

লালমনিরহাট বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) শফিকুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, উত্তরাঞ্চলবাসী সৌভাগ্যবান। কুড়িগ্রাম থেকে নতুন ট্রেন চালু হবে। রংপুর ও লালমনিরহাট থেকেও অপর নতুন কোচের উদ্বোধন করা হলো।

এদিকে রংপুর-২ (বদরগঞ্জ-তারাগঞ্জ) আসনের এমপি আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক বলেন, ‘উত্তরাঞ্চলের রংপুর, কুড়িগ্রামের মানুষ আধুনিক ও নিরাপদ ট্রেন যোগাযোগ ব্যবস্থা থেকে বঞ্চিত ছিল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মানুষের এ কষ্টের কথা চিন্তা করে উত্তরাঞ্চলে নতুন নতুন ট্রেন যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি করলেন। এটি আমাদের জন্য একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনকে কৃতজ্ঞতাসহ ধন্যবাদ জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা