kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শালিস থেকে উঠিয়ে বিচারপ্রার্থীকে পেটালেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ২০:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শালিস থেকে উঠিয়ে বিচারপ্রার্থীকে পেটালেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

গাজীপুরে এক বিচারপ্রার্থীকে শালিস থেকে উঠিয়ে নিয়ে মারধরের অভিযোগ উঠেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার বিরুদ্ধে। সাদা কাগজে স্বাক্ষর না দেওয়ায় কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে ওই রড দিয়ে মারধর করা হয়।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর ১৩নং ওয়ার্ডের ইটাহাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত বিচারপ্রার্থী ফারুক আহমেদ (৩০) ইটাহাটা এলাকার আবুল কাসেমের ছেলে। মাথা ফেটে যাওয়ায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত মো. ইদ্রিস আলী গাজীপুর মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি।

আহত ফারুক আহমেদ অভিযোগ করেন, জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে তার অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার নগরীর ইটাহাটার মতি মার্কেটের কাছে রওশন আলীর বাড়িতে শালিস বৈঠক বসে। স্থানীয় ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর খোরশেদ আলম সরকারসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ শালিসে উপস্থিত ছিলেন। শালিসের এক পর্যায়ে তাকে ও তার পিতাকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর দিতে বলা হয়। তিনি স্বাক্ষর দিতে অস্বীকার করায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইদ্রিস আলী সহযোগীদের নিয়ে শালিস থেকে তাকে উঠিয়ে নিয়ে লোহার রড দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। এতে তার মাথা ফেটে যায়। হাসপাতালে তার মাথায় ৭টি সেলাই দিতে হয়েছে। 

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ইদ্রিস আলী জানান, ফারুক তার চাচাত ভাই। মুরুব্বিদের সাথে উচ্চবাচ্চ্য করায় বড় হিসেবে একটি থাপ্পড় দিয়েছেন।

স্থানীয় কাউন্সিলর খোরশেদ আলম সরকার জানান, শালিসের সিদ্ধান্ত মানবে কি না জানতে চাওয়া হলে ফারুকের সাথে ইদ্রিসের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা