kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

প্রেম করতে অস্বীকৃতি, স্কুলছাত্রী রক্তাক্ত

শরীয়তপুর প্রতিনিধি   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রেম করতে অস্বীকৃতি, স্কুলছাত্রী রক্তাক্ত

শরীয়তপুরের পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে কুপিয়ে আহত করেছে বখাটেরা। প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ওই ছাত্রীকে কুপিয়ে আহত করে স্থানীয় রিফাত ও তার বন্ধুরা। রিফাতকে আটক করতে অভিযান শুরু করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে পালং বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ওই ছাত্রীর পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন যাবত বিলাশখান গ্রামের মৃত কবির শিকদারের ছেলে রিফাত মেয়েটিকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। মেয়েটি প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় সোমবার দুপুর ২টার দিকে স্কুল থেকে পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথে রিফাত ও তার ৪/৫ বন্ধু মেয়েটির গতি রোধ করে। এ সময় রিফাত ছুরি দিয়ে মেয়েটিকে আঘাত করে পালিয়ে যায়। মেয়েটি রাস্তায় ঢলে পড়লে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আশে তার স্বজনরা। কান্নায় ভেঙে পড়েন তারা।

মেয়েটির বড় বোন জানান, দীর্ঘদিন যাবত বখাটে রিফাত আমার বোনকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। স্কুলে আশা যাওয়ার পথে রিফাত তার বন্ধুদের নিয়ে তাকে বিরক্ত করতো। ওর প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় আমার বোনকে খুন করার হুমকি দিয়ে আসছিল রিফাত।

মেয়েটির মা বলেন, আমার মেয়ের জীবনে একি হলো? আমি মেয়েকে পড়তে পাঠিয়েছি। কিন্তু একি অবস্থা। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।

পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষা আব্দুল হালিম বলেন, স্কুলছাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে না পারলে নারী শিক্ষা বাধাগ্রস্ত হবে। মেয়েটি স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের কঠোর শাস্তি দাবি করছি। তাদের শাস্তি নিশ্চিত করতে আমাদের পক্ষ থেকে সব ধরণের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম উদ্দিন বলেন, সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান শুরু হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা