kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুখ ফসকে ‌‌'প্রধানমন্ত্রী খালেদা' বলেছিলেন তিনি, পরদিনই বরখাস্ত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ১৪:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুখ ফসকে ‌‌'প্রধানমন্ত্রী খালেদা' বলেছিলেন তিনি, পরদিনই বরখাস্ত

গুমানতলি ফাজিল মাদরাসার অবস্থান সাতক্ষীরার শ্যামনগরে। তিন কোটি ১৭ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রতিষ্ঠানটিতে সদ্য নির্মিত হয়েছে দুর্যোগ প্রশমন ভবন। গতকাল রবিবার (১৩ অক্টোবর) ছিল দুর্যোগ প্রশমন  দিবস। দিবসটিতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৬৪ জেলায় একযোগে ভবনগুলো উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে মাদরাসার নতুন ভবনে আয়োজন করা হয় আলোচনাসভার। কিন্তু সভায় আকস্মিক ঘটে বিপত্তি। অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল মহিদ সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বলে সম্বোধন করেন। 'স্লিপ অব টাং' যাকে বলে। এ নিয়ে হট্টগোল শুরু হয়। একপর্যায়ে ক্ষমা চেয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন অধ্যক্ষ। কিন্তু এতেও শেষ রক্ষা হয়নি ওই অধ্যক্ষের। বিচারে দোষী সাব্যস্ত করে তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

আজ সোমবার (১৪ অক্টোবর) সকালে মাদরাসা পরিচালনা কমিটির এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

একই সঙ্গে কেন তাঁকে স্থায়ী বরখাস্ত করা হবে না- মর্মে তিন দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য লিখিতভাবে চিঠি দেওয়া হয়েছে। সকাল ১০টায় মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেক এমপি এ কে ফজলুল হকের সভাপতিত্বে জরুরি সভায় কমিটির ১১ সদস্যের মধ্যে আটজন সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেক এমপি এ কে ফজলুল হক বলেন, খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বলে সম্বোধন করে বক্তৃতা দেওয়ায় অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল মহিদকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে কেন তাঁকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না- এই মর্মে তিন দিনের মধ্যে কারণ দর্শানো নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

শ্যামনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউল হক দোলন বলেন, 'এটি অত্যন্ত দুঃখজনক। মাদরাসা অধ্যক্ষ জানিয়েছেন, তিনি বলতে চেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সরকারের সময় মাদরাসায় কোনো উন্নয়ন হয়নি। কথাটি শেষ করার পূর্বেই প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার নাম বলাই সবাই উত্তেজিত হয়ে পড়েন। কথাটি শেষ করতে পারিনি তিনি।

বিষয়টির ব্যাপারে জানতে মাদরাসা অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল মুহিদের সঙ্গে চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা