kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়

লিফট ক্রয়ে বিদেশ সফর, প্রকাশিত সংবাদ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ২২:১২ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



লিফট ক্রয়ে বিদেশ সফর, প্রকাশিত সংবাদ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লিফট ক্রয়ে বিদেশ সফর সম্পর্কিত গত ৪ অক্টোবর থেকে ৭ অক্টোবর পর্যন্ত কয়েকটি জাতীয় দৈনিক প্রত্রিকায় বিভিন্ন শিরোনামে ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াতে সংবাদ প্রচার করা হয়।

আজ রবিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের অফিস কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয় প্রকাশিত সংবাদে কিছু তথ্যগত ভুল রয়েছে যার মাধ্যমে বিষয়টিকে বিতর্কিত ও বিভ্রান্তিমূলকভাবে উপস্থাপন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন (২য় সংশোধিত) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ১০ তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, ১০ তলা বিশিষ্ট ১টি ছাত্র হল ও ১০ তলা বিশিষ্ট ১টি ছাত্রী হল নির্মাণ কার্যক্রম প্রায় শেষ প্রান্তে। এ সকল ভবনের জন্য লিফট সরবরাহের নিমিত্ত বিগত ১৪/১১/২০১৮ ইং তারিখে e-GP পদ্ধতিতে দরপত্র আহ্বান করা হয়। দরপত্রের Specification PWD Schedule এর আলোকে তৈরি করা হয়। PWD Schedule এর Terms & Condition এ Pre-shipment Inspection এর Provision মোতাবেক এ প্যাকেজে Pre-shipment Inspection  রাখা হয়।

উল্লেখ্য যে, PWD কর্তৃক প্রণয়নকৃত Schedule এ লিফটের যে মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে তাতে PSI সংক্রান্ত ব্যয়ও অন্তর্ভূক্ত আছে। টেন্ডার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে লিফট সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান Creative Engineers Ltd এর সহিত চুক্তি পরবর্তী Manufacturer, Schindler Management Ltd, Ebikon, Switzerland কর্তৃক লিফট তৈরি পূর্বক Pre-shipment Inspection এর জন্য আমন্ত্রণ জানায়। অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল উন্নয়নমূলক কাজের Top Supervision এর জন্য শিক্ষক কর্মকর্তা (Technical & Non-technical) সমন্বয়ে গঠিত Local Project Implementation Committee (LPIC) নামে একটি স্থায়ী কমিটি রয়েছে। উক্ত কমিটি প্রকৌশল দপ্তর ও পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও ওয়ার্কস দপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পের কাজের Top Supervision এর দায়িত্ব পালন করে আসছে। এ কমিটিতে শিক্ষক প্রতিনিধি হিসেবে ২ জন ফ্যাকাল্টি ডিন ও প্রক্টর রয়েছেন। চলমান বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে যাদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়া চুক্তি স্বাক্ষরকারী হিসাবে ট্রেজারার, কর্মকর্তা হিসাবে রেজিস্ট্রার এবং পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) রয়েছে যাদের আলাদা আলাদা দায়িত্ব ও ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এ কমিটির কর্মপরিধি এবং Pre-shipment Inspection এর কর্মপরিধি বিবেচনায় এ কাজের জন্য উপাচার্য মহোদয় কর্তৃক Local Project Implementation Committee (LPIC) এর সদস্যদের মনোনয়ন দেওয়া হয়। মনোনীত নয় জনের নামে প্রাথমিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কর্তৃক সেনজেন ভিসা প্রক্রিয়াকরণের জন্য ২০ অক্টোবর থেকে ২৯ অক্টোবর ২০১৯ এর জন্য এনওসি জারি করা হলেও প্রকৃত ভ্রমণের সময় হবে যাতায়াতের দিন বাদে ২১ অক্টোবর থেকে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত মোট ৫ দিন। এই ভ্রমণটির ক্ষেত্রে সুইজারল্যান্ড দূতাবাস কর্তৃক ভিসা প্রদান এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক সরকারি আদেশ প্রদানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে যার পুরোটাই অদ্যাবধি প্রক্রিয়াধীন এবং প্রতিনিধি দলের সদস্য সংখ্যাও চূড়ান্তভাবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক নির্ধারিত হবে।

বিধিসম্মত এ প্রক্রিয়া চলাকালীন অনুমোদন কার্যক্রমকে বাঁধাগ্রস্থ করা, বিশ্ববিদ্যালয়কে জাতির সামনে হেয় প্রতিপন্ন করা এবং প্রকল্প বাস্তবায়নে দীর্ঘ সূত্রতা সৃষ্টি করার নিমিত্ত এ অপপ্রচার করা হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মনে করে।

উপাচার্য উক্ত PSI এ অংশগ্রহণ না করার বিষয়টি বিগত ১ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে নিশ্চিত করা এবং  নির্ধারিত ২/১০/২০১৯ তারিখে ভিসা প্রাপ্তির জন্য স্বাক্ষাৎকার না দেওয়া সত্ত্বেও বারবার প্রিন্ট মিডিয়া এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়া এ বিষয়টি উদ্দেশ্যমূলকভাবে প্রচার পূর্বক তাকে জাতির কাছে হেয় প্রতিপন্ন করার বিষয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সকল কমিটি শিক্ষক কর্মকর্তার সমন্বয়ে হয়ে থাকে, LPIC ও এর ব্যতিক্রম নয়। কমিটি হিসাবে মনোনয়ন দেওয়ায় শিক্ষক- কর্মকর্তা LPIC তে পদাধিকার বলে অন্তর্ভূক্ত হয়েছেন। শিক্ষক-কর্মকর্তাদের ব্যক্তি নামে বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রচার করায় প্রত্যেকের ব্যক্তিগত সম্মান ক্ষুণ্ণ করা হয়েছে। এ বিষয়েও আমরা তার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

এ ছাড়া জানানো হয়, সিন্ডিকেট সদস্য ও ত্রিশালের এমপি হাফেজ মাওলানা রুহুল আমিন মাদানী কর্তৃক একটি পত্রিকায় উদ্ধৃত ‘ভিসি ও ইঞ্জিনিয়ার মো. হাফিজুর রহমান দুজনই ঘনিষ্ঠ আত্মীয়। ই-টেন্ডারের পাসওয়ার্ডও তাদের পছন্দসই ঠিকাদারদের কাছে থাকে’ এর কোনোটিই সঠিক নয়। এ ছাড়া রেজিস্ট্রারের উদ্ধৃতি দিয়ে একই পত্রিকায় যে বক্তব্য প্রচার করা হয়েছে তা তার বক্তব্য ছিল না এবং সংবাদের প্রতিবেদক তার সাথে কোনো যোগাযোগও করেননি।

পরিশেষে উপস্থিত সকল সাংবাদিককে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের নামে প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানকে সকলের নিজের প্রতিষ্ঠান মনে করে বস্তুনিষ্ঠ ও সত্য সংবাদ প্রকাশের জন্য সবিনয় অনুরোধ জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা