kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অর্থাভাবে স্মৃতিসৌধ নির্মাণ কাজ বন্ধ

জয়নাল আবেদিন বাবুল, পীরগঞ্জ    

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ১৯:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অর্থাভাবে স্মৃতিসৌধ নির্মাণ কাজ বন্ধ

ঠাকুরগাওয়ের পীরগঞ্জে অর্থের অভাবে বন্ধ রয়েছে কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধ নির্মাণ কাজ। সরকারিভাবে অন্যান্য স্থাপনা নির্মাণ দ্রুতগতিতে চললেও এটির প্রতি নজর নেই কারো। স্মৃতিসৌধ নির্মাণ কাজ তদারকির দায়িত্বে থাকা পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুজ্জামান জানান, পৌর শহরের মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের ভবনসংলগ্ন দক্ষিণে উপজেলার কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধ নির্মাণ কাজ শুরু করা হয় কয়েক বছর আগে। ঠাকুরগাও ৩ আসনের সাবেক এমপি ইয়াসিন আলী ২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেন। এরপর জেলা পরিষদ সদস্য সেতেরা হক জেলা পরিষদ থেকে আরো ২ লাখ টাকা বরাদ্দ করান। এ টাকায় এবং স্থানীয় দোকানে বাকিতে কিছু মালামাল কিনে স্মৃতিসৌধের প্রায় অর্ধেক কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। 

সম্প্রতি উপজেলা পরিষদ থেকে ১ লাখ টাকা বরাদ্দ করার কথা তাকে জানানো হয়েছে। কিন্তু সে টাকা দিয়েও কাজ শুরু করা যাচ্ছে না। কারণ ওই টাকা দোকানের ধার পরিশোধ করতেই লাগবে। কাজ হবে কিভাবে। টাকা না থাকার স্মৃতিসৌধের নির্মাণ কাজ শুরু করা যাচ্ছে না। তিনি আরো জানান, কাজ শেষ করতে আরো কমপক্ষে ৭ লাখ টাকা লাগবে। এখনো ওই টাকার কোনো বন্দোবস্ত হয়নি। এ বিষয়ে সকলের সহযোগিতা দরকার। 

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ আখতারুল ইসলাম বলেন, স্মৃতিসৌধটির নির্মাণ কাজ অতিসত্তর শেষ হওয়া দরকার। তিনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নতুন। এখন কোনো বরাদ্দ নেই। তাই এই মুহূর্তে কিছু করা যাচ্ছে না। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে তার কথা হয়েছে। আগামীতে বরাদ্দ আসলে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখা হবে।

একটি সুত্র জানায়, নেতাকর্মীদের সন্তুষ্ট করতে টিআর কাবিখা বরাদ্দ দেওয়া হলেও স্মৃতিসৌধ নির্মাণে বর্তমান সাংসদ বিএনপি নেতা জাহিদুর রহমান কোনো বরাদ্দ দেননি। এ বিষয়ে স্থানীয় ঠাকুরগাও ৩ আসনের সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান আশ্বস্ত করে বলেন, তিনি এমপি হবার পর শুধু একবারই বরাদ্দ পেয়েছেন। দলীয় নেতাকর্মীদের অনেক প্রত্যাশা ছিল। এ কারণে এবার স্মৃতিসৌধ নির্মাণে বরাদ্দ দেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে আগামীতে তার পক্ষ থেকে এ বিষয়ে সকল প্রকার সহযোগিতা করা হবে বলে তিনি আশ্বস্ত করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা