kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

আড়াইহাজারে মোটর মিস্ত্রিকে হত্যা; ঈশ্বরগঞ্জে মহাসড়ক অবরোধ

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৯:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আড়াইহাজারে মোটর মিস্ত্রিকে হত্যা; ঈশ্বরগঞ্জে মহাসড়ক অবরোধ

গত তিনদিন আগে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের বৈরাটি গ্রামের কিশোর মজিবুরকে আড়াআহাজার উপজেলার পুরিন্দা এলাকায় গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। তার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার নিজ এলাকায় মানববন্ধন করেন মা, ভাই-বোন, ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বার ও এলাকাবাসী।

এ সময় ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের মাইজবাগ বাসস্ট্যান্ডে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে উভয় দিকের সকল ধরনের যনবাহন বন্ধ থাকে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ পুলিশ প্রশাসন ঘটনাস্থলে এসে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগের আশ্বাস দিলে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার রাতের কোনো এক সময় নারায়াণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়নের পুরিন্দা বাজারে অবস্থিত জুয়েল রানার গ্যারেজের ভেতর মজিবুরকে জবাই করে হত্যা করা হয়। পরদিন পুলিশ মজিবুরের জবাই করা লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। গতকাল বুধবার পারভেজের লাশ ঈশ্বরগঞ্জে বৈরাটি গ্রামে এনে দাফন করা হয়। 

হত্যার ঘটনায় মজিবুরের চাচা ইসলাম উদ্দিন বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলা জুয়েল রানার গ্যারেজের কর্মচারী সুমন (১৮) ও অজ্ঞাত দুই-তিনজনকে আসামি করা হয়। পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

বাদী ইসলাম উদ্দিন জানান, তিনি পড়ালেখা জানেন না। পুলিশ এজাহার লিখে তার সই নিয়েছে। কিন্তু এজাহারের বিবরণে পারভেজ আহমেদ পুরিন্দা বাজারের গ্যারেজে কিভাবে চাকরি নিয়েছে সে সম্পর্কে কোনো বিবরণ উল্লেখ করা হয়নি।

নিহতের মা ফাতেমা খাতুন বলেন, তার ছেলে গাজীপুর সিটির এক মোটরসাইকেল শো-রুমে চাকরি করতো। গাজীপুর থেকে যারা তাকে পুরিন্দা বাজারের গ্যারেজে নিয়ে গেছে তারা এ হত্যার ঘটনার সাথে জড়িত বলে তিনি (ফাতেমা) ধারণা করছেন। তিনি ছেলে হত্যার মামলাটি গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) দ্বারা তদন্ত করার দাবি জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা