kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে চলছে ফেরি

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে চলছে ফেরি

নাব্যতা সংকটে প্রায় ৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা থেকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ-রুটে ফেরি চলাচল শুরু করেছে। ভোর ৫টা থেকে রোরো ও কে-টাইপসহ ১০টি ফেরি ও সকাল ১০টা থেকে ৬টি ডাম্ব ফেরি চলাচল শুরু করে। নাব্যতা সংকট নিরসনে ড্রেজিং চলছে। 

জানা যায়, গত আগস্ট মাস থেকেই শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ-রুটে নাব্যতা সংকটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছিল। গত সোমবার সন্ধ্যা থেকে নাব্যতা সংকটের কারণে এ রুটের সকল ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। মঙ্গলবার দুপুর থেকে হালকা যানবাহন নিয়ে দুটি কে-টাইপ ফেরি চলাচল শুরু হলেও বিকেলে আবার বন্ধ হয়ে যায়। বুধবার সকাল থেকে এ রুটে ৪/৫টি ফেরি চলাচল করে। রাত ৯টার দিক আবারও ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। নদীতে ড্রেজিং কার্যক্রম চলমান থাকলেও স্রোতের কারণে খননকাজ ব্যাহত হচ্ছে। তার ওপর স্রোতের সাথে প্রচুর পরিমাণে পলি ভেসে এসে নৌ-চ্যানেলের প্রবেশমুখে ডুবোচর সৃষ্টি করছে। স্রোত কিছুটা কম থাকায় গত তিন দিন ড্রেজিং এর মাধ্যমে নাব্যতা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা থেকে ৪টি রো রো ও ৬টি কে-টাইপ ফেরি চলাচল শুরু করে। সকাল ১০টা থেকে ৬টি ডাম্ব ফেরিও চলাচল শুরু করে কর্তৃপক্ষ। তবে ফেরিগুলো ধারণক্ষমতার অনেক কম যানবাহন নিয়ে পারাপার হচ্ছে। এদিকে দীর্ঘ সময় ফেরি বন্ধ থাকায় উভয় ঘাটে ৬ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকে পড়ে পরিবহন শ্রমিকরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

বিআইডাব্লিউটিসির কাঁঠালবাড়ী ঘাট ব্যবস্থাপক আব্দুস সালাম মিয়া বলেন, ভোর ৫টা থেকে রো রোসহ ১০টি ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। সকাল ১০টা থেকে ৬টি ডাম্ব ফেরিও চলাচল শুরু হয়েছে। ঘাট এলাকায় কিছু যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। সংকট নিরসনে নদীতে ড্রেজিং চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা