kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

ফরিদপুরে হত্যা মামলায় সাতজনের মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৩:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফরিদপুরে হত্যা মামলায় সাতজনের মৃত্যুদণ্ড

ফরিদপুরে পিকআপচালক কেরামত হাওলাদার হত্যা মামলায় সাত আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন ফরিদপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালত। আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. সেলিম মিয়া পাঁচ আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। এ ছাড়া প্রত্যেক আসামিকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। অন্য দুই আসামি পলাতক রয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলাা সিঙ্গারডাক গ্রামের তোফা মোল্লা (২৬), পলাশ ফকির (৩২), সিদ্দিক খালাসী (৩৭), ভাঙ্গার চান্দ্রা গ্রামের এরশাদ মাতুব্বর (৩২), আনোয়ার মোল্লা (২৮), জেলার সদরপুরের আমীরখাঁর ডাঙ্গি গ্রামের সিরাজ খাঁ (২৭) এবং ভাঙ্গা চান্দ্রা গ্রামের নাঈম মাতুব্বর (৩৫)। এর মধ্যে শেষের দুজন পলাতক রয়েছে।

নিহত কেরামত হাওলাদার ভাঙ্গার উত্তর লোহার গ্রামের মৃত শামসু হাওলাদারের ছেলে।

ফরিদপুরের সরকারি কৌঁসুলি দুলাল চন্দ্র সরকার জানান, ২০১৪ সালের ১৫ ডিসেম্বর সকালে পুলিশ ভাঙ্গা উপজেলার দীঘলকান্দা বিল থেকে পিকআপচালক কেরামতের পেট ও গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে। ওই দিনই কেরামতের বড় ভাই আকরাম হাওলাদার বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানায় সাতজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর এসআই এস এম মনিরুল ইসলাম তদন্ত করে ওই সাত আসামির বিরুদ্ধে আদালতে ২০১৫ সালের ৭ ডিসেম্বর অভিযোগপত্র জমা দেন। দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালত বৃহস্পতিবার এ রায় দেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা