kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

শ্যালকের শাবলের আঘাতে দুলাভাই খুন

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি   

৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১৬:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্যালকের শাবলের আঘাতে দুলাভাই খুন

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার অন্তর্গত বগুড়া পৌরসভার ২১ নম্বর ওয়ার্ডের ঢাকন্তা গ্রামে শ্যালকের শাবলের আঘাতে দুলাভাই খুন হয়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল কুদ্দুস ডিলু জানান, বগুড়া সদর উপজেলার শেখবাড়ী গ্রামের মৃত গোফ্ফার হোসেনের ছেলে শাজাহান আলী (৩৫) কয়েক বছর আগে শাজাহানপুর উপজেলার ঢাকন্তা গ্রামে বিয়ে করে নিশ্চিন্তপুর চারমাথা বাজারে ইলেক্ট্রিক দোকানের ব্যবসা শুরু করেন। কিছুদিন আগে শাজাহান আলী ঢাকন্তা গ্রামে তার মামা শ্বশুর হেলাল উদ্দিনের নিকট থেকে একখণ্ড জমি ক্রয় করেন। মামা শ্বশুর হেলাল উদ্দিনের ছেলে শ্যালক রনি (৩০) জমির টাকা তার বাবাকে না দিয়ে তাকে দিতে বলেন। কিন্তু তাতে রাজি না হয়ে তার বাবাকে টাকা দিলে রনি ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। 

এমতাবস্থায় গত বৃহস্পতিবার শাজাহান আলী স্ত্রীকে সাথে নিয়ে ঢাকন্তা গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে এলে মামতো শ্যালক রনি লোহার শাবল দিয়ে শাজাহানের মাথাসহ শরিরের বিভিন্ন স্থানে উপর্যুপরি আঘাত করে। গুরুতর আহত হয়ে শাজাহান আলীকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়। শুধু মারপিট করেই থামেনি রনি। নিশ্চিতপুর বাজারে শাজাহানের ইলেক্ট্রিক দোকান ভাঙচুর ও লুটপাটও করে। এ ঘটনায় শাজাহান আলীর স্ত্রী কাজলী বেগম এবং নিশ্চিন্তপুর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা থানার এসআই ওবায়দুল আল মামুন জানান, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাজাহান আলী মারা যান। মামলা দায়েরের পরপরই ঢাকন্তা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে রনিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা