kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

আলমডাঙ্গায় গান শেখানোর কথা বলে দীর্ঘদিন ধর্ষণ, নারী সহযোগী গ্রেপ্তার

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি   

৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০৯:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আলমডাঙ্গায় গান শেখানোর কথা বলে দীর্ঘদিন ধর্ষণ, নারী সহযোগী গ্রেপ্তার

গান শেখানোর অজুহাতে আলমডাঙ্গার ডাউকি গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে গ্রামের হবিবর শাহ ওরফে সাধুবাবার বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে আলমডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। ধর্ষণে সহযোগিতা করায় সাধুবাবার নারী সহযোগী হাজেরা খাতুনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ হাজেরা খাতুনকে আটক করে। ধর্ষক হবিবর শাহ পালিয়ে গেছে।

আলমডাঙ্গা থানার ডিউটি অফিসার এএসআই শাহবুদ্দিন লস্কর জানান, মঙ্গলবার রাতে ডাউকি গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়া এক শিশুর পিতা থানায় এসে অভিযোগ করেন, তার মেয়েকে গান শেখানোর অজুহাতে গ্রামের হবিবর শাহ ওরফে সাধুবাবা প্রায়ই ধর্ষণ করত। এ ব্যাপারে থানায় তিনি লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগ পেয়ে রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে হবিবর শাহ এর নারী সহযোগী হাজেরা খাতুনকে আটক করে থানায় এনেছে। আটক হাজেরা খাতুন একই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী। হবিবর শাহ পালিয়ে গেছে।

ধর্ষক হবিবর শাহ‘র স্ত্রী এক বছর আগে মারা গেছেন। তারপর থেকে ওই শিশুকে গান শেখানোর জন্য বাড়িতে ডেকে নিতেন হবিবর শাহ। হবিবর শাহর অনেক নারী সহযোগী আছে। তাদের একজন হাজেরা খাতুন। ধর্ষণে হাজেরা খাতুন সহযোগিতা করত বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা