kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

দুদকের ভয়ে বিএনপি ছাড়লেন শোকরানা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২১:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুদকের ভয়ে বিএনপি ছাড়লেন শোকরানা!

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সম্পদের হিসাব চেয়ে নোটিশ দেবার ৫ দিনের মাথায় বিএনপি ছাড়ায় ঘোষণা দিয়েছেন বগুড়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী চার তারকা খচিত হোটেল নাজ গার্ডেনের প্রতিষ্ঠাতা মো. শোকরানা। সোমবার রাতে বগুড়া জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্যসহ দলীয় সকল পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। এরই মধ্যে তার পদত্যাগপত্র সোমবার কেন্দ্রীয় বিএনপির মহাসচিবের কাছে পাঠানো হয়েছে। 

চলতি বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর মো. শোকরানার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এবং তার সম্পদের হিসাব বিবরণী চেয়ে নোটিশ দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আগামী ২১ কার্যদিবসের মধ্যে সম্পদের হিসাব দাখিল করতে বলা হয়েছে। মো. শোকরানা স্বাক্ষরিত পত্রে বলেন, ব্যক্তিগত ও পারিবারিক কারণে দলের সকল পদ থেকে পদত্যাগ করলেন।

জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) এর সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক আর থাকল না। পদত্যাগের চিঠিটি মহাসচিব বরাবর প্রেরণ করেন।

জানা যায়, ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত শোকরানা বগুড়ায় যুবলীগের নেতৃত্ব দিয়েছেন। বগুড়ার কিবরিয়া হত্যার ঘটনায় তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। ওই মামলায় তিনি সোয়া ছয় বছর জেল খেটেছেন। '৭৫ ১৫ আগস্ট তিনি গ্রেপ্তার হন। ১৯৮১ সালে বিচারপতি আবদুস সাত্তার ক্ষমতায় এলে 'মুক্তিযোদ্ধা' হিসেবে তিনি সাধারণ ক্ষমায় মুক্তি পান। পরে ১৯৯৯ সালে তারেক রহমানের হাত ধরে বিএনপিতে যোগ দেন শোকরানা। এরপর বগুড়া ১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসন থেকে সংসদ নির্বাচনে অংশ নিলেও তিনি পরাজিত হন। এরপর বগুড়া জেলা বিএনপির উপদেষ্টা, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য হিসেবে থেকে সারিয়াকান্দি ও সোনাতলা উপজেলায় বিএনপির সাংগঠনিক উন্নয়নের বিভিন্ন দিক নিয়ে কাজ শুরু করে শেষ করতে পারেননি। বিএনপির দুঃসময়ে থাকলেও দলে ভালো পদ-পদবিও পাননি মো. শোকরানা। গত বছর তিনি কানাডায় ছেলের কাছে বেড়াতে যান। পরে দেশে ফিরে এসে কিছু দিন বিশ্রামে থাকার পর তিনি বিএনপি ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর মো. শোকরানার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এবং তার সম্পদের বিবরণী চেয়ে নোটিশ দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আগামী ২১ কার্যদিবসের মধ্যে সম্পদের হিসাব দাখিল করতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা