kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

ছিনতাই নাটক সাজিয়ে দুই যুবক শ্রীঘরে

নাটোর প্রতিনিধি   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছিনতাই নাটক সাজিয়ে দুই যুবক শ্রীঘরে

বিকাশের প্রায় ৬ লাখ টাকা অস্ত্রের মুখে ছিনতাই হয় নাটোরের লালপুরে। বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটরের ডিএসও সুমন আলী বিষয়টি জানালে পুলিশ তদন্তে নামে। কিন্তু দ্রুতই পাল্টে যায় চিত্রপট। সন্দেহের বশে পুলিশ ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে সুমন স্বীকার করে নেন সাজানো নাটক ছিল এটি। মামাতো ভাই হাসানের সাথে পরিকল্পনা করে সুমন নিজেই এ ঘটনা ঘটান। পুলিশ দুজনকে আটকের পর উদ্ধার করেছে সমস্ত অর্থ। দুই যুবকের ঠাঁই হয়েছে কারাগারে।

আলোচিত ছিনতাই ঘটনা নিয়ে বৃহস্পতিবার নাটোর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন জানান,বুধবার লালপুর থানা পুলিশের কাছে সংবাদ এসেছিল একটি ছিনতাই ঘটনার। বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটরের ডিএসও সুমন আলী উপজেলার চংধুপইল থেকে গোপালপুর যাওয়ার পথে চিরঞ্জীব মমতাজ স্মৃতি সৌধ এলাকায় ছিনতাইয়ের শিকার হন। অস্ত্রের মুখে তার কাছে থাকা ৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও প্রতিষ্ঠানের দুটি মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় ছিনতাইকারীরা।

লালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার তদন্তে নামেন। সুমনকে জিজ্ঞাসাবাদ ও কিছু আলামতে দ্রুতই বুঝতে পারেন ঘটনা সাজানো। এক পর্যায়ে সুমন আলী স্বীকার করেন, টাকাগুলো মামাতো ভাই হাসানের কাছে রেখে ছিনতাইয়ের নাটক করেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে বড়াইগ্রাম থানার মিস্ত্রিপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ হাসানকে গ্রেপ্তার করে। তার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

পুলিশ সূত্র জানায়, গ্রেপ্তারকৃত হাসান বড়াইগ্রাম থানার মিস্ত্রিপাড়া এলাকার ইউনুস আলীর ছেলে। আর সুমন জোয়ারী গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা