kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

বাকেরগঞ্জে পুলিশকে জিম্মি করে সোনার দোকানে ডাকাতি

বরিশাল অফিস   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১২:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাকেরগঞ্জে পুলিশকে জিম্মি করে সোনার দোকানে ডাকাতি

বরিশালের বাকেরগঞ্জের কলসকাঠি বন্দরে পুলিশকে জিন্মি করে বুধবার দিবাগত রাতে ৬টি সোনার দোকানে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতদলের হামলায় বাকেরগঞ্জ থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) জসিম গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে ও পরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার দিনগত রাত আনুমানিক সোয়া ১টার দিকে কলসকাঠি বাজারে একদল ডাকাত হানা দেয়। শুরুতে তারা ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে ব্যাংকের নাইট গার্ডকে বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসা করে। তখন কাছাকাছি থাকা থানা পুলিশের একটি টহল দল বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে যায় এবং ডাকাতদলের সদস্যদের চ্যালেঞ্জ করে। এসময় জসিমকে তার পেছন দিকে মাথার ওপর আঘাত করে ডাকাতরা। 

এরপর তারা নাইটগার্ডসহ সবাইকে জিন্মি করে বাজারের কানাই লাল কর্মকার, ঝন্টু সাহা, মিন্টু পাল, তপন কর্মকার, গোপাল পাল ও টুটুল কর্মকার ও সেবা ফার্মেসিতে লুটপাট চালায়। ব্যবসায়ীদের দাবি, ৬০ ভরির বেশি সোনা ও নগদ কয়েক লাখ টাকা লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। ডাকাতের হামলায় আহত হয়েছেন নিজ খরচে দোকানে থাকা চারজন পাহারাদার, চা দোকানী জামাল হোসেন ও রফিকুল ইসলাম, জুয়েলারি কর্মচারী, ঝন্টু কারিগর, কালু কারিগর, সজল দাস, উত্তম দাস, হৃদয় কর্মকার ও জয়ন্ত কর্মকার। তাদেরকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আবুল কালাম জানান, খবর পেয়ে থানা পুলিশের অন্য সদস্যরা ঘটনাস্থলে আসার আগে ডাকাত দলের সদস্যরা পালিয়ে যায়। ডাকাত দলের সদস্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা