kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

পুলিশ সদস্যের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী আটক

নাটোর প্রতিনিধি   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:৩৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পুলিশ সদস্যের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী আটক

নিহত গৃহবধূ পিংকী বেগম ওরফে মুক্তি

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় এক পুলিশ সদস্যের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। স্বামীর বাড়ি থেকে পিংকী বেগম ওরফে মুক্তি (২২) নামের ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে। তবে নিহতের বাবার অভিযোগ তার মেয়েকে নির্যাতন করে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার থানায় মামলা হয়েছে। এদিকে বুধবার বিকাল সাড়ে ৪টায় তার স্বামীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। নিহত গৃহবধূ পিংকী বেগম পার্শ্ববর্তী বাজিতপুর গ্রামের আবুল কালাম আজাদের বড় মেয়ে। 

থানা সূত্রে জানা যায়, পুলিশ মঙ্গলবার রাতে খবর পেয়ে পিংকীর স্বামীর বাড়ির শয়ন কক্ষের বাঁশের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না প্যাঁচানো ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ময়না তদন্ত শেষে আজ বুধবার নিহতের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরিবারের লোকজন বুধবার দুপুর ২টায় বাজিতপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জানাজা শেষে সামাজিক কবরস্থানে দাফন করেছে।

পিংকীর বাবা জানান, দুই বছর আগে উপজেলার রহিমানপুর হেনার মোড় এলাকার মিন্নাত আলীর ছেলে মাসুম আলীর সঙ্গে তার মেয়ে পিংকীর বিয়ে দেন। এরপর থেকে মাঝে মধ্যেই মেয়েকে তার স্বামী মাসুম যৌতুকের জন্য নির্যাতন করত। কিছু দিন আগেও স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্যতায় পিংকী তাদের (বাবার) বাড়িতে এসেছিলেন। পরে পিংকীর শ্বশুর এসে তাকে নিয়ে যায়।

ঘটনার দিন মঙ্গলবার স্বামী পুলিশ সদস্য মাসুম কর্মস্থল জয়পুর হাটের কালাই থানা থেকে বাড়ি আসেন। এদিন দুপুরে স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে বাবার বাড়িতে পিংকীর খাওয়ার কথা ছিল। রান্না-বান্না করা হলেও মেয়ে তার বাড়িতে যায়নি। এনিয়ে মোবাইল ফোনে বিকাল ৫টার দিকে মেয়ের সঙ্গে তার শেষ কথা হয়।

এরপর রাতে তিনি মেয়ের মৃত্যুর খবর পান। তিনি আরো জানান, তার মেয়ে পিংকী তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। নির্যাতন করে তার স্বামী তাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে। তিনি এর বিচার চান।

নিহতের ছোট বোন প্রিয়া জানান, লাশ গোসলের সময় তার বোনের গায়ে অনেক দাগ দেখা  গেছে। তিনি দাবি করেন তার বোনকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। তিনি অভিযুক্তের শাস্তি দাবি করেন।

এ ব্যাপারে বাগাতিপাড়া মডেল থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম শেখ পিপিএম জানান, তিনিসহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু হাসনাত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যাপারে নিহত পিংকীর বাবা মামলা করেছেন।

তিনি আরো জানান, বুধবার বিকাল সাড়ে ৪টায় জয়পুরহাট থেকে নিহতের স্বামী পুলিশ সদস্য মাসুম আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা