kalerkantho

বুধবার । ১৬ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৬ সফর ১৪৪১       

জাবির সেই ছাত্রলীগ নেতাকে ক্যাম্পাস ছাড়ার হুমকি

বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে আন্দোলনকারী শিক্ষকদের ফোন নম্বর

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:৩১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জাবির সেই ছাত্রলীগ নেতাকে ক্যাম্পাস ছাড়ার হুমকি

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদ্য পদচ্যুত সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে ফোনালাপ ফাঁস হওয়া জাবি ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেনকে অপরিচিত মোবাইল নম্বর থেকে হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। সোমবার রাতে একাধিক নম্বর থেকে ফোন দিয়ে ‘বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে’ বলা হয়েছে বলেও জানান সাদ্দাম। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের অভ্যর্থনা কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা জানান। সাদ্দাম জাবি শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও গোলাম রাব্বানীর গ্রুপের রাজনীতি করেন। 

সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘আমাকে গতকাল (সোমবার) রাত ১০টার দিকে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন দিয়ে আমার শুভাকাঙ্ক্ষীর পরিচয় দিয়ে কথা বলে। অপরিচিত ব্যক্তি আমাকে বলে, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও শাখা ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতাকর্মীরা আমার ওপর ক্ষিপ্ত। যে কোনো সময় তারা আমার ক্ষতি করতে পারে। তাই আমাকে খুব দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে বলা হয়েছে।’

তিনি আরো জানান, ‘আজ (মঙ্গলবার) বিকাল সাড়ে চারটা থেকে আমরা ফোন ডিজেবল করা হয়েছে। এছাড়া শাখার সহসভাপতি নিয়ামুল হাসান তাজ ও সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম মোল্লা ফোন নম্বর বন্ধ করা হয়েছে। সিমের ইনকামিং এবং আউটগোয়িং কল এবং এসএমএস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এ অবস্থায় আমি চরমভাবে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আমি কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিয়েছিলাম কিন্তু তারা আমাকে বলেছে আপনার সিমটা বন্ধ করা হয়েছে। তবে কেন, কী কারণে হয়েছে সেটা কাস্টমার কেয়ার বলতে পারছে না।’ 

এদিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনকারী শিক্ষকসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য, উপ-উপাচার্যসহ ছাত্রলীগ নেতাদের ফোনের সিমের কার্যকারিতাও বন্ধ রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবির, উপ-উপাচার্য প্রশাসন আমির হোসেন, আন্দোলনকারী শিক্ষক অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, অধ্যাপক রায়হান রাইন, অধ্যাপক জামাল উদ্দীন ও অধ্যাপক তারেক রেজা প্রমুখের নম্বর বন্ধ করে দিয়েছে।

তবে কেন বা কী কারণে তাদের ফোন নম্বরগুলো বন্ধ করা হয়েছে সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কিছু জানা যায়নি।

অপরদিকে মঙ্গলবার রাতে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ হলসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকটি হল ‘রেইড’ হতে পারে বলে নির্ভরযোগ্য কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হল গিয়ে দেখা যায় হলটিতে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা না হয় সে জন্য হল প্রাধ্যক্ষ হল প্রশাসনকে নিয়ে সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন।

শিক্ষার্থীর নিরাপত্তা ও হল রেইডের বিষয়ে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের প্রাধ্যক্ষ  অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল্লাহ হেল কাফী বলেন, ‘কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা যাতে না হয় সেজন্য আমরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছি। আমরা হলের প্রত্যেকটি শিক্ষার্থীর নিরাপত্তার বিষয়টি দেখি। তবে মোবাইল ফোনে যেহেতু হুমকি দিয়েছে সেটি কে বা কারা তা আমরা জানি না। এমন হতে পারে বাইরের কেউ; তাই তাকে (সাদ্দামকে) থানায় মামলা করতে হবে।’

এ প্রসঙ্গে প্রক্টর ফিরোজ উল হাসান জানান, ‘ফোন বন্ধ করার বিষয়টি আমি জানি না। আর কোনো শিক্ষার্থীকে যদি কেউ হুমকি দিয়ে থাকে। সেই সঙ্গে সে যদি আমাদের শিক্ষার্থী হয় এবং আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ করে তাহলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নিবো।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা