kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১            

প্রাইভেট শিক্ষিকার বাবা যখন ধর্ষক!

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২০:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রাইভেট শিক্ষিকার বাবা যখন ধর্ষক!

প্রতিবেশী সম্পর্কে দাদুর বাসায় গত পাঁচ মাস ধরে প্রাইভেট পড়ছে প্লে শ্রেণি পড়ুয়া শিশু (৪ বছর ১০ মাস)। কিন্তু কয়েকদিন ধরে আর যেতে চাচ্ছিল না শিশুটি। শুধুই কান্নাকাটি করত। একপর্যায়ে পরিবারের শাসনের কারণে বাধ্য হয়েই শিশুটি ফের প্রাইভেট পড়তে যায়। আর সেখান থেকে ফেরার পথে মুখ চেপে ধরে অন্য ঘরে নিয়ে পাশবিক নির্যাতন করে প্রাইভেট শিক্ষিকার বাবা। এ ধরনের ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ পৌরসভার চরহোসেনপুর মহল্লায়। এ ঘটনায় গত সোমবার রাতে মামলা হলেও অভিযুক্ত ধর্ষক রয়েছে অধরা। আজ মঙ্গলবার দুপুরে শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ও ২২ ধারায় জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র ও পুলিশ জানায়, উপজেলার পৌর সদরের স্থানীয় একটি কিন্ডারগার্টেনে প্লে শ্রেণিতে পড়ছে শিশুটি। এ অবস্থায় নিজ বাসার পাশেই অন্য একটি বাসায় নিয়মিত প্রাইভেট পড়ে বাসার মালিকের মেয়ের কাছে। প্রতিদিনের মতো গত রবিবার বিকেল ৫টায় প্রাইভেট পড়া শেষে শিশুটি বাসায় ফিরছিল। ওই সময় প্রাইভেট শিক্ষিকার বাবা সুরঞ্জিত সরকার (৫৫) শিশুটিকে পাশের কক্ষে নিয়ে গিয়ে মুখ চেপে ধর্ষণ করে। এ অবস্থায় বিভিন্ন লোভ দেখিয়ে অন্যান্য দিনের মতো বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য ভয় দেখানো হয়।

শিশুটির মা জানান, ওই দিন সন্ধ্যার পরপরই তার মেয়ে মাথাব্যথা ও শরীরের অন্য স্থানে ব্যথার কথা বলে শুয়ে পড়ে। পরে মধ্য রাতে মেয়ের কান্নাকাটির আওয়াজ পেয়ে তিনি কাছে গিয়ে মাথায় হাত বুলান। একপর্যায়ে দেখতে পান তার মেয়ের পরনের প্যান্টে এক ধরনের রহস্যময় দাগ লেগে রয়েছে। এ অবস্থায় মেয়ের কাছে ঘটনা জানতে চাইলে মেয়ে অকপটে তাকে নির্যাতনের কথা বলে কান্নায় ভেঙে পড়ে। পরে বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেশীকে জানালে তারা দেখবেন বলে আশ্বাস দিয়ে আর দেখেননি। একপর্যায়ে থানাকে জানালে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ঈশ্বরগঞ্জ থানার এসআই সজীব ঘোষ আজ মঙ্গলবার বিকেলে জানান, শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা ও ২২ ধারায় জবানবন্দি সম্পন্ন হয়েছে। এখন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা