kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১            

ধর্ষণচেষ্টা রুখে দিল '৯৯৯'

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৯:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্ষণচেষ্টা রুখে দিল '৯৯৯'

আটক যুবক হৃদয় মিয়া

জরুরি নাগরিক সেবায় ব্যবহৃত ৯৯৯ নম্বরে দেয়া ফোনকল রক্ষা করেছে এক কলেজ ছাত্রীর সম্ভ্রম। ঘটনাটি কিশোরগঞ্জ ভৈরবের। বাড়িতে একা অবস্থান করা কলেজ ছাত্রীর ঘরে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে ঢুকে পড়েছিল এক যুবক । প্রতিবেশিদের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে ঢাকায় অবস্থান করা তরুনীর বড় ভাই '৯৯৯'-এ ফোনকল করে সহযোগিতা চান। প্রত্যন্ত অঞ্চল হলেও দ্রুতই ঘটনাস্থলে পৌছে পুলিশ। হাতেনাতে ধরে ফেলে হৃদয় মিয়া (২৩) নামের যুবককে। সোমবারের এ ঘটনা স্থানীয়ভাবে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।

সূত্র জানায়, সোমবার দুপুরে তরুণীর বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগ নেয় বখাটে যুবক হৃদয় মিয়া। তরুণীর ঘরে ঢুকে ভেতর থেকে দরজা আটকে ধর্ষণচেষ্টা চালায় হৃদয়। এ সময় তরুণীর চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসেন। ঢাকায় অবস্থানরত তরুণীর বড় ভাইকে ঘটনা জানান প্রতিবেশিরা। বড় ভাই বিলম্ব না করে ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে পুলিশের সহযোগিতা চান। তাৎক্ষণিক সংবাদে ভৈরব থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে যায়। এরপর বখাটে যুবক হৃদয় মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়।

স্বজনরা জানান, আটক যুবক হৃদয় মিয়া ভৈরব উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের টানকৃষ্ণনগর গ্রামের কাজল মিয়ার ছেলে। আক্রান্ত তরূণী একটি কলেজের মাধ্যমিক ২য় বর্ষের ছাত্রী। তরুণীর বাবা মারা গেছেন পাঁচ বছর আগে। তিনি মা হারিয়েছেন ছয় মাস বয়সে। দুই ভাই ও চার বোনের মধ্যে তরুনী সবার ছোট। বোনদের বিয়ে হয়ে গেছে। এক ভাই থাকেন ঢাকায়। আরেক ভাই ভৈরবেই কর্মরত। বাড়িতে তরুণীকে প্রায়শই একা থাকতে হয়। স্থানীয় বখাটে হৃদয় মিয়া দীর্ঘদিন ধরে তরুণীকে উত্যক্ত করে আসছিল। এ নিয়ে অভিভাবক ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে একাধিকবার নালিশ দিলেও প্রতিকার মেলেনি। থানায় জিডি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করা হয়েছে। বেপরোয়া হৃদয় সর্বশেষ সোমবার ধর্ষণের উদ্দেশ্যে তরুণীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে। এরপর পুলিশের দ্রুত উপস্থিতির কারণে তরুণীকে রক্ষা সহজ হয়। প্রত্যন্ত অঞ্চলে ৯৯৯ কলের মাধ্যমে দ্রুত সেবা পাওয়ার এ ঘটনা প্রশংসিত হচ্ছে স্থানীয়দের মাঝে।

ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহালুল খান বাহার বলেন, 'জরুরি সেবার ৯৯৯ থেকে সংবাদ পেয়ে ঘটানাস্থলে দ্রুত পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। মেয়েটির ঘর থেকে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করে থানায় আনা হয়েছে। তরুণীর ভাই এ বিষয়ে মামলা দায়ের করেছেন।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা