kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১            

'মাদকের সাথে সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যকে সাদা পোশাকে বাড়ি পাঠানো হবে'

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:১৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



'মাদকের সাথে সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যকে সাদা পোশাকে বাড়ি পাঠানো হবে'

কক্সবাজারের মহেশখালীতে চৌকিদার প্যারেড ও আইনশৃঙ্খলাসংক্রান্ত এক মতবিনিময়সভা আজ সোমবার মহেশখালী থানায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন বলেছেন, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে পুলিশের পাশাপাশি সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে কাজ করতে হবে। সবাই সহযোগিতা করলে চলমান মাদকের আগ্রাসন কমাতে অবদান রাখতে পারবে পুলিশ। মাদক নির্মূলে পুলিশের জিরো টলারেন্স রয়েছে। একই সাথে পুলিশের কোনো সদস্য মাদকের সাথে জড়িত বা মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্ক রাখলে তাকে সোজা সাদা পোশাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হবে। 

পুলিশ সুপার আরো বলেন, দেশে জনসংখ্যার তুলনায় পুলিশের সংখ্যা কম। আর পুলিশের ১০টা হাতও নেই। তাই সব অপরাধীকে একসাথে ধরা পুলিশের পক্ষে সম্ভব না। তবে অপরাধীদের ধরা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সব অপরাধীকে ধরবই। পুলিশের এই অপরাধী ধরায় সর্বাত্মকভাবে সহযোগিতা করছে গ্রামপুলিশরা। তারা রাত জেগে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আসামি ধরতে পুলিশকে সহযোগিতা করে। এভাবে তারা দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ব্যাপকভাবে ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক বলেন, গ্রামপুলিশেরা অল্প বেতনে খেয়ে না-খেয়ে নিরলসভাবে দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে। এই অবদান মূল্যায়ন করে প্রধানমন্ত্রী এবার তাদের জীবনমানের উন্নয়নের উদ্যোগ নিয়েছে। তাদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির একটি প্রস্তাব হয়েছে। শিগগিরই তা বাস্তবায়ন  হবে। এটি বাস্তবায়ন হলে গ্রামপুলিশদের আর কোনো অর্থনৈতিক কষ্ট থাকবে না।

এ সময় প্রতিটি ইউনিয়নের গ্রামপুলিশদের জন্য পাঁচটি করে সাইকেল বরাদ্দ দেওয়ার ঘোষণা দেন আশেক উল্লাহ রফিক। 

মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধরের সভাপতিত্বে মহেশখালী থানার উদ্যোগে থানা চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, কক্সবাজার প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, কক্সবাজারের সিনিয়র সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ, মহেশখালী উপজেলা চেয়ারম্যান শরীফ বাদশা, মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার পাশা, কক্সবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম, সহকারী পুলিশ সুপার (ডিএসবি) শহীদুল ইসলাম, মহেশখালী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার রতন কুমার চক্রবর্তী।

এ ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন মহেশখালীর কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ, এ ছাড়া প্রতিটি ইউনিয়নের কর্মরত চৌকিদারবৃন্দ। অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠ চৌকিদারদের মাঝে ক্রেস্ট ও অর্থ বিতরণ করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা