kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

ট্রাফিক পুলিশ পেটানো ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে

নড়াইল প্রতিনিধি    

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ট্রাফিক পুলিশ পেটানো ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে

নড়াইলের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. মনিরুজ্জামানকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফানসহ তিনজনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) কারাগারে পাঠানো হয় তাদেরকে।

এর আগে গতকাল রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) গ্রেপ্তার করা হয় তাদেরকে। গ্রেপ্তার অন্য দুজন হলেন নাজমুল ও মেহেদী।

সরকারি কাজে বাধা, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি, বলপ্রয়োগ এবং পেটানোর ঘটনা উল্লেখ করে আহত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে ৯ জনের নামে অজ্ঞাত আরো কয়েকজনসহ  সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। আজ সোমবার তাদের পক্ষে নড়াইল সদর আমলি  আদালতে জামিনের আবেদন করলে বিচারক জাহিদুল আজাদ জামিন শুনানির জন্য ১৭ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য্য করেন। একইসঙ্গে আসামিদের জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন তিনি।

গতকাল রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নড়াইল পুরাতন বাস টার্মিনাল ট্রাফিক মোড়ে সড়কে বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালক এক তরুণকে আটক করে ট্রাফিক পুলিশ। কাগজপত্রহীন গাড়িটি পুলিশ না ছাড়ায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রথমে ট্রাফিক পুলিশকে ফোন করেন। পরে দলবল নিয়ে ট্রাফিক পুলিশের ওপর ঝাপিয়ে পড়েন ভাইস চেয়ারম্যান তুফান। এ ঘটনায় ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর মো. মনিরুজ্জামানসহ চার জন আহত হন। আহত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর নড়াইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নড়াইল সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফান জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিমউদ্দিন পিপিএম বলেন, পুলিশ জনগণের স্বার্থেই কাজ করে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা