kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

সাগরে ২ ট্রলারডুবি, সাত জেলে নিখোঁজ

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২০:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাগরে ২ ট্রলারডুবি, সাত জেলে নিখোঁজ

ঝড়ের কবলে পড়ে বঙ্গোপসাগর থেকে কূলে ফেরার সময় ২৯ জেলেসহ দুটি মাছধরা ট্রলার ডুবির খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে সাত জেলে নিখোঁজ রয়েছেন। গত বুধবার সন্ধ্যায় পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের কচিখালীসংলগ্ন এলাকায় এফবি পূর্ণিমা এবং বৃহস্পতিবার দুপুরে সাগরের ১ নম্বর ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকায় এফবি আল-ছাত্তার ট্রলার ডুবে যায়।

এফবি আল-ছাত্তার ট্রলারের মালিক পিরোজপুরের পাড়েরহাটের ইকবাল মিয়া রাত ৮টার দিকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানান, তার ট্রলারটি গত মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) সাগরে যায়। বুধবার বিকেল থেকে আবহাওয়া খারাপ হতে থাকে। ট্রলারটি গভীর সাগর থেকে কুয়াকাটায় ফেরার সময় ফেয়ারওয়ে বয়ার কাছাকাছি এলে ঢেউয়ের আঘাতে তলা ফেটে ডুবে যায়। ট্রলারের ১৯ জন জেলের মধ্যে ১২ জনকে এফবি অনিমা নামের একটি ট্রলারের জেলেরা উদ্ধার করলেও সাতজন এখনো নিখোঁজ রয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে নিখোঁজদের নাম জানা যায়নি। উদ্ধার হওয়া জেলেদের পাথরঘাটায় নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। 

তিনি আরো জানান, বুধবার সন্ধ্যায় তাদের এলাকার মৎস্য ব্যবসায়ী নিমাই চন্দ্র দাসের এফবি পূর্ণিমা নামের ট্রলারটি সুন্দরবনের কচিখালীর কাছাকাছি সাগরে ডুবে যায়। ওই ট্রলারের ১০ জেলেকে অন্য একটি ট্রলারের জেলেরা উদ্ধার করেছে।

বাগেরহাট জেলা ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি ও জাতীয় মৎস্য সমিতির শরণখোলা উপজেলা সভাপতি মো. আবুল হোসেন জানান, বঙ্গোপসাগরের অবস্থা খুবই ভয়াবহ। লঘুচাপের প্রভাব কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় ট্রলারগুলো দুই দিন আগে সাগরে ফিরে যায়। জাল ফেলার আগেই আবার সাগর অশান্ত হয়ে উঠলে কূলে ফেরার সময় ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে। গত দুই দিনে বিভিন্ন এলাকার ৫-৬টি ট্রলারডুবির খবর শুনেছেন বলে জানান তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা