kalerkantho

বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে ‘স্বতন্ত্র’ প্রার্থী হলেন মেয়র

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৮:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে ‘স্বতন্ত্র’ প্রার্থী হলেন মেয়র

মনোনয়ন না পেয়ে 'দলত্যাগ' করেছেন নবীনগর পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ মাঈনুদ্দিন মাইনু। বৃহস্পতিবার তিনি ‘স্বতন্ত্র’ প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিএনপির এই পদত্যাগী নেতা নবীনগর উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক। অর্থের বিনিময়ে বিএনপির মনোনয়ন দেয়া হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য নবীনগর পৌরসভার নির্বাচনে বৃহস্পতিবার ছিল মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। মাইনুসহ মোট ১১ জন প্রার্থী মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

সূত্র জানায়, বিএনপি নেতা মোহাম্মদ মাঈনুদ্দিন মাইনু নবীনগর পৌরসভার বর্তমান মেয়র। তিনি এবার দলীয় মনোনয়নের বিষয়ে অনেকটা নিশ্চিত ছিলেন। কিন্তু বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে নবীনগর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো.শাহাবুদ্দিনকে। এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুরে মাঈনুদ্দিন নাটকীয়ভাবে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেন। এরপর স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা  দেন।

মেয়র মাঈনুদ্দিন মাইনু কালের কণ্ঠকে বলেন,‘আমার জনপ্রিয়তার ঈর্ষান্বিত হয়ে মনোনয়ন থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। অর্থের বিনিময়ে সম্পূর্ণ অনিয়মতান্ত্রিকভাবে অন্য একজনকে ধানের শীষ প্রতীক দেয়া হয়েছে। তাই আমি বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি। ইনশাল্লাহ এবারও  বিপুল ভোটে জয়ী হবো।’ তার সাথে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন থেকে ২৭ নেতাকর্মী পদত্যাগ করেছেন বলে মাইনু দাবি করেন।

নবীনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আনিছুর রহমান মঞ্জু বলেন.‘অর্থ বিনিময়ের অভিযোগ মনগড়া ও মিথ্যা। স্থানীয়  নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে কেন্দ্র থেকে মনোনয়ন দিয়েছেন। দলের প্রতি আনুগত্যের কারণেই শাহাবুদ্দিন এবার ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন।’

আগামি ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য নবীনগর পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে ‘নৌকা’ প্রতীকে এডভোকেট শিব শংকর দাস, জাতীয় পার্টি থেকে ‘লাঙ্গল’ প্রতীকে  মো. আবু জাহের, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি থেকে মো. ইসহাকসহ মোট ১১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা