kalerkantho

অস্ত্র, ইয়াবাসহ ধরা সিলেটের স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১২:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অস্ত্র, ইয়াবাসহ ধরা সিলেটের স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি পীযূষ কান্তি দেকে (৪২) তাঁর তিন সহযোগীসহ গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। এ সময় পীযূষের কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও মাদক উদ্ধার করা হয়।

গতকাল বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সিলেট নগর এলাকা থেকে এসব অস্ত্র ও মাদকসহ গ্রেপ্তার করা হয় তাঁদেরকে। পীযূষের সঙ্গে তাঁর যে তিন সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তারা হলেন বাপ্পা পাল, মিন্টু রায় ও রায়হান আহমদ।

র‍্যাব-৯ এর মিডিয়া অফিসার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান এসব তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, গতকাল  বুধবার রাতে মির্জাজাঙ্গালে পীযূষের আস্তানায় অভিযান চালায় র‍্যাব-৯ এর একটি বিশেষ দল। এ সময় সেখানে তল্লাশি চালিয়ে একটি বিদেশি রিভলভার, দুই রাউন্ড গুলি ও বিপুল পরিমাণ ইয়াবা পাওয়া যায়।

মনিরুজ্জামান আরো বলেন, পীযূষ সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক। তাঁর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, মারধরসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। নগরীর জিন্দাবাজার-লামাবাজার সড়কের মির্জাজাঙ্গালে আস্তানা গড়ে তুলে তিনি এসব কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।

২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে জিন্দাবাজারে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় অস্ত্র হাতে পীযূষের ছবি ছাপা হয়  বিভিন্ন সংবাদপত্রে। ওই সময় বিষয়টি নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরের বছরের সেপ্টেম্বরে তালতলা এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে ঢুকে চাঁদা না পেয়ে কক্ষ দখল করে রাখায় পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করে।

গত ৬ অগাস্ট তিন প্রবাসীকে মারধর করেন পীযূষের অনুসারীরা। এ নিয়ে কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগীরা। এরপর কয়েক দিন মির্জাজাঙ্গালের আস্তানায় যাতায়াত বন্ধ রাখেন পীযূষ। সেখানে ফিরে আসার খবর পেয়ে গতকাল বুধবার রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা