kalerkantho

মামলার ৩২ বছর পর সাক্ষ্য গ্রহণ !

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মামলার ৩২ বছর পর সাক্ষ্য গ্রহণ !

চিনি মজুদ করার অভিযোগে মামলা হয়েছিল ৩২ বছর আগে। ভ্রাম্যমাণ আদালত ১০০ বস্তা চিনি জব্দ করে মামলা করেছিলেন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। কিন্তু সে ঘটনার বিচার বিলম্বিত হয়েছে নানা আইনী প্রক্রিয়ায়। সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু করতেই কেটে গেছে দীর্ঘ সময়। অবশেষে বুধবার হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে তিন জন সাক্ষ্য দিয়েছেন।

সূত্র জানায়, ১৯৮৭ সালের ১৯ মে হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় ঘটে চিনি জব্দের ঘটনা। তখনকার ম্যাজিস্ট্রেট মোবারক হোসেন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন কাকাইলছেও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হক ভূইয়ার গুদামে। সেখানে মজুদ পাওয়া যায় ১০০ বস্তা চিনি। মোট ৫টন চিনি সেখানে সংরক্ষণ করার পক্ষে নুরুল হক ভূইয়া কোন বৈধ কাগজ দেখাতে পারেননি। এ অবস্থায় ম্যাজিস্ট্রেট চিনি জব্দ করেন। সে সময় নুরুল হক ভূইয়ার বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫ ধারা ও শুল্ক আইনের ১৫৬(৮) ধারায় মামলা হয়। মামলাটি দীর্ঘদিন হাইকোর্টের নির্দেশে স্থগিত ছিল। তা আবার সচল হয়েছে।
 
আলোচিত এ মামলায় বুধবার দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ নাসিম রেজার আদালতে তিন জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। তারা হলেন- হরেন্দ্র চন্দ্র রায়, হাজী আকবর হোসেন ও মোতাব্বির হোসেন। এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত পিপি এডভোকেট ছালেহ আহমেদ। আসামি পক্ষে জেরা করেন সাবেক পিপি এডভোকেট আকবর হোসেন জিতু।

এডভোকেট আকবর হোসেন জিতু বলেন, 'মামলাটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে দায়ের করা হয়েছিল। সাক্ষীদের এ বিষয়ে জেরা করেছি।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা