kalerkantho

সুপেয় পানিবঞ্চিত ৯ শতাধিক শিক্ষার্থী

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২০:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুপেয় পানিবঞ্চিত ৯ শতাধিক শিক্ষার্থী

ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌর শহরে অবস্থিত ইসলামিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও খায়রুল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৯ শতাধিক শিক্ষার্থীর জন্য দীর্ঘদিন যাবৎ সুপেয় পানির ব্যবস্থা নেই। এ অবস্থায় কোমলমতি শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে বিদ্যালয়সংলগ্ন দোকানে ও পাশের বিদ্যালয়ে পানি পান করতে যায়। এতে বড় দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, গফরগাঁও ইসলামিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশু শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত ৫০৯ জন শিক্ষার্থী লেখাপড়া করে। কিন্তু শিক্ষার্থীদের জন্য সুপেয় পানির কোনো ব্যবস্থা নেই। কয়েক বছর পূর্বে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সরকারি উদ্যোগে একটি টিউবওয়েল স্থাপন করা হলেও গণব্যবহারের কারণে অল্প দিনের মধ্যেই টিউবওয়েলটি অকেজো হয়ে যায়। এ অবস্থায় শিক্ষার্থীদের জন্য বিদ্যালয়ের ওয়াশব্লকে স্থাপন করা সাবমার্সেবল পাম্প থেকে কলসি ভরে পানি অফিস কক্ষে রাখা হয়। কিন্তু এতসংখ্যক শিক্ষার্থীর জন্য বার বার কলসি ভরে পানি রাখা সম্ভব হয় না। ফলে অনেক শিক্ষার্থী ঝুঁকি নিয়ে বিদ্যালয়সংলগ্ন ব্যস্ততম সড়কের পাশের দোকানপাটে পানি পান করতে যায়। সড়কটিতে শতশত গাড়ি চলাচল করে। এতে মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনা। 

অন্যদিকে খায়রুল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চার শতাধিক শিক্ষার্থী লেখাপড়া করে। কিন্তু বিদ্যালয়টিতে ৮ বছর যাবৎ কোনো টিউবওয়েল স্থাপন করা হয়নি। তৃষ্ণা পেলে শিক্ষার্থীরা পাশের খায়রুল্লাহ সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সাবমার্সেবল পাম্পে পানি খেতে যায়। এতে অনেক সময় সমস্যা হয়। বড় শিক্ষার্থীরা পানি খাওয়া শেষ হলে তবেই ছোট শিক্ষার্থীরা পানি খাওয়ার সুযোগ পায়।

ইসলামিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাবিনা ইয়াসমীন বলেন, টিউবওয়েল না থাকায় সমস্যা হচ্ছে। এত শিক্ষার্থীর জন্য বারবার কলসি ভরে পানি রাখা সম্ভব হয় না। খায়রুল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহসান উল্লাহ বলেন, প্রায় ৮ বছর যাবৎ আমার বিদ্যালয়ে টিউবওয়েল নাই। এ অবস্থায় শিক্ষার্থীরা পাশের বিদ্যালয়ের পাম্পে পানি খেতে যায়।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সালমা আক্তার বলেন, প্রধান শিক্ষকদের নিয়ে মাসিক সমন্বয়সভায় আজকেও এ বিষয়ে কথা হয়েছে। এ দুটি বিদ্যালয় ছাড়াও অনেক বিদ্যালয়ে টিউবওয়েল নাই। থাকলেও অকেজো অথবা পানিতে দুর্গন্ধ। এগুলোর তালিকা করা হচ্ছে। পরে উপজেলা মাসিক সমন্বয়সভায় সমস্যাগুলো উপস্থাপন করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা