kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহিদুল হক বললেন

আইন যাতে বৈষম্যমূলক না হয় সে জন্য সরকার কাজ করছে

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২০:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আইন যাতে বৈষম্যমূলক না হয় সে জন্য সরকার কাজ করছে

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বিচার ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহিদুল হক বলেছেন, উন্নয়নের সাথে আইন জড়িত। রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য ৪/৫টি আইন করা হয়েছে। পদ্মা সেতুর জন্যও আইন হয়েছে। তবে আইন যাতে বৈষম্যমূলক না হয় তার জন্য সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ যে আইন রয়েছে তা সবই ভালো। সমস্যা হচ্ছে প্রয়োগে। আইন নিয়ে আমাদের মতো দেশেই বেশি বৈষম্য হচ্ছে বলে ধারনা প্রচলিত থাকলেও উন্নত দেশেও এই বৈষম্য দেখা যায়। আমেরিকা, বৃটেন এবং ইউরোপে প্রাইভেট চাকরিতে একই কাজের জন্য নারীর চেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পায় পুরুষরা।

আজ শুক্রবার হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার দি প্যালেস লাক্সারি রিসোর্টে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ও বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ক্লাইমেট ফান্ড ২ এর সহায়তায় দেশের প্রচলিত আইনে অসামঞ্জস্যতা ও বৈষম্য দূরীকরণের লক্ষে স্টেক হোল্ডারদের সাথে মতবিনিময়কালে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ কথাগুলো বলেন।

তিনি আরো বলেন, সরকার এসডিজি বাস্তবায়নের লক্ষে দ্রুত আইনের বৈষম্য দূর করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। যাদের জন্য এই আইন করা হবে তাদের দুঃখের কথা ও মতামত শুনে এই আইন প্রণয়ন হবে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো বৈষম্য বিলুপ্ত করে জনগণের স্বার্থ সংরক্ষণ করা।

তিনি বলেন, সমাজে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ আছে যারা এক ধরনের প্রথার শিকার। তাদের জন্যই আমাদের উদ্যোগ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষের চিন্তা করেন বলেই এই উদ্যোগ নেয়া সম্ভব হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এই দূরদর্শিতার জন্য আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। দেশের মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণ হয়েছে। শিশু ও মাতৃ মৃত্যু হার কমেছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ৪ বার বলেছেন বাংলাদেশকে ফলো করা উচিত। সারা বিশ্বে আজ বাংলাদেশ অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

মতবিনিয়কালে বক্তৃতা করেন যুগ্ম-সচিব ড. মহিউদ্দিন, আইএফসি প্রতিনিধি মিয়া রহমত আলী, হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ, ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ নাসিম রেজা, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তানিয়া কামাল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফজলুল হক, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মর্জিনা আক্তার ও বাহুবল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আয়েশা হক।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা