kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কিশোরী কন্যার বিয়ে দিতে গিয়ে বাবা জেলে

হাতীবান্ধা (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কিশোরী কন্যার বিয়ে দিতে গিয়ে বাবা জেলে

অভিযুক্ত কনের বাবা, কাজী ও বিয়ের ঘটক

কিশোরী কন্যার বিয়ের আয়োজন করে কারাগারে গেলেন লালমনিরহাট হাতীবান্ধার এক পিতা আলতাব হোসেন। তার সাথে ৬ মাস জেলবন্দি থাকতে হবে বিয়ের কাজী শফিকুল ইসলাম ও ঘটক মোশারফ হোসেনকে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের লালমনিরহাট কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আগের রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও হাতীবান্ধা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সামিউল আমিন তাদের আটকের পর সাজা প্রদান করেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার রাতে হাতীবান্ধা উপজেলার আরাজি শেখ সুন্দর এলাকায় একটি বাল্যবিয়ের প্রস্তুতি চলছিল। সংবাদ পেয়ে পুলিশ সেখানে হানা দেয়। এক পর্যায়ে কনের বাবা আলতাব হোসেনকে আটক করা হয়। তিনি আরাজি শেখ সুন্দর এলাকার আহম্মেদ আলীর পুত্র। এ সময়  সানিয়াজান ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্টার কাজী শফিকুল ইসলাম ও ঘটক ঠাংঝাড়া এলাকার হাশেম আলীর পুত্র মোশারফ হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও হাতীবান্ধার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন অভিযুক্ত তিনজনকে ৬ মাস করে কারাদণ্ড প্রদান করেন।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওমর ফারুক জানান, সাজাপ্রাপ্ত তিন আসামিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে লালমনিরহাট কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা