kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রিফাত হত্যাকাণ্ড : অভিযুক্ত শ্রাবণের জামিন

বরগুনা প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রিফাত হত্যাকাণ্ড : অভিযুক্ত শ্রাবণের জামিন

ছবি: কালের কণ্ঠ

বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডের চার্জশিটভুক্ত অভিযুক্ত আরিয়ান হোসেন শ্রাবণের জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত। বুধবার বিকেল ৪টার দিকে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আসাদুজ্জামান এ জামিনের আদেশ দেন।

এদিকে এ মামলা চার্জশিট দাখিলের পর গতকাল প্রথম ধার্য তারিখে আরিয়ান হোসেন শ্রাবণসহ অপর ছয়জন অপ্রাপ্তবয়স্ক অভিযুক্তকে যশোর শিশু কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। রিফাত হত্যা মামলার দুই ভাগে বিভক্ত চার্জশিটের অপ্রাপ্তবয়স্ক গঠন করা চার্জশিটে ১৪ নম্বর অভিযুক্ত করা হয়েছে আরিয়ান হোসেন শ্রাবণকে।

গত আট জুলাই আরিয়ান হোসেন শ্রাবণকে গ্রেপ্তারের কথা জানায় পুলিশ। পরে ওইদিন বিকেলে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। পরে শুনানি শেষে আদালত শ্রাবণের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর পাঁচ দিন রিমান্ড শেষে আরিয়ান শ্রাবণকে ফের একই আদালতে হাজির করে দ্বিতীয় দফায় আবার সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।

পরে দ্বিতীয় দফায় আদালত শ্রাবণের আবারো পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জর করেন। দ্বিতীয় দফার রিমান্ড শেষে গত ১৮ জুলাই আরিয়ান শ্রাবণ বরগুনার সিনিয়র জুপিসিয়্যাল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে রিফাত হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপর থেকেই কারাগারে ছিলেন আরিয়ান শ্রাবণ। 

এ বিষয়ে আরিয়ান শ্রাবণের আইনজীবী অ্যাডভোকেট গোলাম মোস্তফা কাদের বলেন, গত ২৪ জুলাই আরিয়ান শ্রাবণের জন্য বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিনের আবদেন করা হয়। কিন্তু শুনানি শেষে ওইদিন আদালত শ্রাবণের জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

এরপর গত ১ আগস্ট বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে শ্রাবণের জামিনের জন্য মিস কেস দাখিল করেন তিনি। গত ১ সেপ্টেম্বর এই মিস কেসের আংশিক শুনানি হওয়ার পর পূর্ণাঙ্গ শুনানির জন্য আদালত ৪ সেপ্টেম্বর (বুধবার) দিন ধার্য করেন। পরে বুধবার বিকেলে পূর্ণাঙ্গ শুনানি শেষে জেলা ও দায়রা জজ আদালত শ্রাবণের জামিনের আদেশ দেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা