kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অভিন্ন নীতিমালা বাতিলের দাবিতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২১:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভিন্ন নীতিমালা বাতিলের দাবিতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মতের প্রতিফলন না ঘটিয়ে শিক্ষকদের নিয়োগ, পদোন্নতি সংক্রান্ত প্রস্তাবিত অভিন্ন নীতিমালার বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ (স্বাশিপ)। আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের হাদী চত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে শিক্ষকেরা অভিন্ন নীতিমালাকে অসামঞ্জস্যপূর্ণ, অযৌক্তিক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্বশাসন বিরোধী আখ্যা দিয়ে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মানে স্বতন্ত্রতা। তারা অভিযোগ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের মধ্যে যেখানে আলাদা পাঠদান এবং পরীক্ষা পদ্ধতি চলে সেখানে সকল বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে অভিন্ন নীতিমালা কিভাবে বাস্তবসম্মত হয়। শিক্ষাব্যবস্থার মূল সমস্যার দিকে দৃষ্টিপাত না করে উচ্চশিক্ষা ধ্বংসের প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে এই আইন পাস করা হচ্ছে বলে অভিযোগ জানিয়ে তারা অবিলম্বে শিক্ষাবান্ধব প্রজ্ঞাপন জারির আহ্বান জানান।

স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মো. ওয়ালিউল হাসানাত বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা যাতে স্বাধীনভাবে কাজ এবং গবেষণা করতে পারেন, সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে স্বায়ত্বশাসন ও বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিয়েছিলেন। অথচ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য যে অভিন্ন নীতিমালা প্রণয়ন করে অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে, সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি এবং সংশ্লিষ্ট কারো সুপারিশ গ্রহণ করা হয়নি। 

স্বাশিপের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. আশীষ কুমার দাস বলেন, শিক্ষিত জাতি এবং সুস্থ সমাজ গঠনে মেধাবীদের শিক্ষকতা পেশায় নিয়ে আসতে হবে, যার জন্য স্বায়ত্বশাসন জরুরি। অথচ এই আইন পাস হলে মেধাবীদের কাছে শিক্ষকতা অনাকর্ষণীয় পেশা হিসেবে বিবেচিত হবে।

মানববন্ধনে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা