kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

এনজিও'র নাম ভাঙিয়ে মাদক কারবার, বিপুল ইয়াবাসহ আটক ২

অনলাইন ডেস্ক   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৮:১২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এনজিও'র নাম ভাঙিয়ে মাদক কারবার, বিপুল ইয়াবাসহ আটক ২

সোসাইটি ফর এস্টাবলিশমেন্ট অ্যান্ড ইমপ্লিমেনটেশন অব হিউম্যান রাইটস (মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা ও বাস্তবায়ন সংস্থা) নামে একটি প্রতিষ্ঠিত বেসরকারি মানবাধিকার সংস্থার নাম ভাঙিয়ে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা পাচারের অভিযোগে দুই মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ৭ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল। আজ বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টার সময় ওই দুই ভুয়া মানবাধিকারকর্মীকে ৬০৮০০ পিস ইয়াবা ও একটি ক্রসওভার-সহ আটক করা হয়।    

র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ৭ এর আইন ও গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাশকুর রহমান জানান, চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানাধীন ৯ নম্বর বড়লিয়া ইউপির আমজুর হাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৬০৮০০ পিস ইয়াবাসহ মো. নাছিবুর রহমান ওরফে নাছিব (৪২) ও মো. রাশেদ (২৭) নামে দুই মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাব। মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি ক্রসওভার (মাইক্রোবাস ও প্রাইভেট কার এর সমন্বয়) জব্দ করা হয়।

তিনি আরো জানান, র‍্যাব গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে কতিপয় মাদক কারবারি একটি ক্রসওভারযোগে বিপুলপরিমাণ ইয়াবা কক্সবাজার থেকে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছে। ওই সংবাদের ভিত্তিতে আজ (৪ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টার সময় র‌্যাব ৭ এর একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানাধীন ৯ নম্বর বড়লিয়া ইউপির আমজুর হাট এলাকার মক্কা মার্কেটের সামনে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ওপর একটি বিশেষ তল্লাশিচৌকি স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে।

এ সময় কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের দিকে আসা একটি ক্রসওভারের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে র‌্যাব সদস্যরা গাড়িটিকে থামানোর সংকেত দিলে ড্রাইভার গাড়িটিকে না থামিয়ে র‌্যাবের চেকপোস্ট অতিক্রম করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে গাড়িটি আটক করে ও মো. নাছিবুর রহমান ওরফে নাছিব (৪২) ও মো. রাশেদ (২৭)-কে আটক করে। 

তিনি আরো জানান, পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সামনে আটককৃত আসামিদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানো ও শনাক্তমতে গাড়িটি তল্লাশি করে ভেতরে রাখা ল্যাপটপ, সাউন্ড বক্স এবং ব্যাগে বিশেষ কৌশলে লুকানো অবস্থায় ৬০৮০০ পিস ইয়াবা উদ্ধারসহ উক্ত ক্রসওভারটি (ঢাকা মেট্রো-খ ১৩-২১৮৪) জব্দ করা হয়। 

গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ কক্সবাজারের মাদক কারবারিদের সাথে যোগসাজশে তাদের কাছ থেকে কমমূল্যে ইয়াবা সংগ্রহ করে ওই ক্রসওভারে করে ভিন্ন ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মাদক কারবারিদের কাছে অধিক মূল্যে বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি টাকা।

জানা গেছে, ক্রসওভারটি ভুয়া ওই মানবাধিকারকর্মী নাছিবুর রহমান ওরফে নাছিব এর। তার কাছে পাওয়া গেছে ওই সংস্থাটির ভিজিটিং কার্ড, যাতে তিনি নিজেকে ওই সংস্থার ঢাকা জেলার সভাপতি দাবি করেছেন।  

এ প্রসঙ্গে কালের কণ্ঠের পক্ষ থেকে কথা বলা হয় সোসাইটি ফর এস্টাবলিশমেন্ট অ্যান্ড ইমপ্লিমেনটেশন অব হিউম্যান রাইটস এর কেন্দ্রীয় মহাসচিব নূরুল ইসলামের সাথে। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ওই নামে আমাদের কোনো কর্মকর্তা নেই। আমাদের ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি মোক্তদির হোসেন। আমাদের বা আমাদের সংস্থান নাম ব্যবহার করে কেউ যদি কোনো অন্যায় কাজ করে তার জন্য দেশে প্রচলিত আইন অনুযায়ী তার শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক- এ কথাও বলেও তিনি।   

উল্লেখ্য, গ্রেপ্তারকৃত আসামি এবং উদ্ধারকৃত মালামালসংক্রান্ত পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা