kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ব্রিটিশ আমলের তৈরি সেই কূপটি সংস্কারের আশ্বাস

আক্কেলপুর (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রিটিশ আমলের তৈরি সেই কূপটি সংস্কারের আশ্বাস

জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে রেলওয়ে কলোনি এলাকায় ব্রিটিশ শাসনামলের তৈরি সরকারি সেই ঐতিহাসিক সচল কূপ নিয়ে কালের কণ্ঠে ধারাবাহিক খবর প্রকাশের পর কূপটি সংস্কারের আশ্বাস পাওয়া গেছে।

আজ বুধবার দুপুরে আক্কেলপুর রেলস্টেশন উন্নয়ন কমিটির সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল হক বাবলু জানিয়েছেন, কূপের বিষয়ে গণ্যমাণ্য ব্যক্তিদের সাথে আলোচনা হয়েছে। সেই সাথে কূপটি রক্ষা ও সংস্কারের দাবি জানিয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম আকন্দের কাছে একটি লিখিত আবেদন দিয়েছেন স্থানীয়রা।

বুধবার দুপুরে স্থানীয় বাসিন্দাদের পক্ষ থেকে রেল কর্তৃপক্ষের ভেঙে ফেলা কূপের চারপাশের ভাঙা ইটগুলো শ্রমিক দিয়ে সরিয়ে ফেলার সময় সেখানে হট্টগল হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন স্টেশন ইনচার্জ খাতিজা আক্তার, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম, পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ টিপু চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ছবের রেজা সুরুজসহ ২০-৩০ জন স্থানীয় বাসিন্দা।

একপর্যায়ে রেলস্টেশনের উন্নয়ন কমিটির আহ্বায়ক আনোয়ারুল ইসলাম বাবলু বলেন, ঘটনাটির সময় আমি চিকিৎসার জন্য ঢাকায় ছিলাম। এই বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), স্টেশন ইনচার্জসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে বসে আলোচনা করে সামাজিকভাবে দশের উপকারে কাজ করা হবে। বিগত দিনে আমি যেসব কাজ করেছি তা সমাজের দশজনের সাথে আলোচনা করেই করেছি।

এর আগে খবর প্রকাশের পর গত ২৭ আগস্ট রেল কর্তৃপক্ষের চাপের মুখে সাবেক সেই নারী কাউন্সিলর রোজী আক্তার নিজেই কূপটির চারপাশের ইট দিয়ে ঘেরাও করা অংশ ভেঙে ফেলেন। তবে তিনি ভাঙা ইটগুলো কূপটির পাশে জরো করে রেখেছিলেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও স্থানীয় বাসিন্দা ছবের রেজা সুরুজ বলেন, রেলস্টেশন উন্নয়ন কমিটির সভাপতি আনোয়ারুল হক বাবলু চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে থাকায় তার নাম ভাঙিয়ে ব্রিটিশ শাসনামলের তৈরি কূপের পাড়া ভেঙে ফেলা হয়। এনিয়ে কালের কণ্ঠে ধারাবাহিক খবর প্রকাশ হলে রেলকর্তৃপক্ষ তা ভেঙে দেয়। আমরা কূপটি রক্ষা ও সংস্কারের দাবি জানিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত আবেদন দিয়েছি।

আক্কেলপুর রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার হাসিবুল হাসান বলেন, কূপটির বিষয়ে রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে ম্যাসেজ দেওয়ার পর তারা পদক্ষেপ নিয়ে কূপটির ঘেরাও করা ইটের দেয়াল ভেঙে দেয়। কর্তমানে কূপটির পাড় না থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা