kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জি এম কাদের বললেন

দলীয় শৃঙ্খলা নষ্ট করলে ব্যবস্থা

০ দলীয় মনোনয়ন না পেলে নির্বাচন করবেন না সাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০২:০১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দলীয় শৃঙ্খলা নষ্ট করলে ব্যবস্থা

জি এম কাদের

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া নিয়ে নানা ধরনের টানাপড়েন চলছে। এরই মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন এরশাদের জ্যেষ্ঠপুত্র রাহগীর আল মাহী সাদ।

অন্যদিকে সাদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর গতকাল দুপুরে জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে এক অনির্ধারিত প্রেস ব্রিফিংয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধ আছে। ঐক্যবদ্ধ থাকবে। রংপুর আসন জাপার দুর্গ। এ আসনে জাতীয় পার্টির বিশাল সমর্থকগোষ্ঠী আছে। অনেকেই দলীয় মনোনয়ন চাইতে পারেন, তবে প্রার্থী চূড়ান্ত করবে জাপার দলীয় মনোনয়ন বোর্ড। 

অবশ্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর রাহগীর আল মাহী সাদ গণমাধ্যমকর্মীদের বলেছেন, জাতীয় পার্টির মনোনয়ন না পেলে পিতার মৃত্যুতে শূন্য হওয়া আসনের উপনির্বাচনে তিনি অংশ নেবেন না। দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী হবেন না। মনোনয়নপত্র ক্রয়ের সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ফয়সাল চিশতি, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা, মেজর (অব.) খালেদ আকতারসহ বেশ কজন নেতাকর্মী।

দলীয় মনোনয়নপত্র ক্রয় করে সাদ নিজে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের ও পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গার কাছে জমা দেন।

এ সময় সাদ গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন এবং বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। সাদ বলেন, ‘আমি রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। আমার পিতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি, সাবেক সেনাপ্রধান, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা। তাঁর সন্তান হিসেবে আমি মনোনয়ন চাই।’ 

সাদ নিজেকে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বলেও দাবি করেন। 

রংপুরে তাঁর বিরুদ্ধে মিছিলের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সাদ বলেন, ‘জাতীয় পার্টি একটি বড় সংগঠন। এখানে পছন্দ-অছন্দের লোক থাকতেই পারে। দলীয় সিদ্ধান্ত ঘোষিত হলে সব ঠিক হয়ে যাবে। মনোনয়ন না পেলে আমি নির্বাচনে অংশ নেব না।’ তবে জাতীয় পার্টি তাঁকেই মনোনয়ন দেবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

আগামী ৫ সেপ্টম্বর পর্যন্ত জাতীয় পার্টির মনোনয়নপত্র বিক্রি হবে। ৬ সেপ্টেম্বর জাপার পার্লামেন্টারি বোর্ডের সভায় দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হবে। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুসারে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর।

এ পর্যন্ত রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে অংশ নিতে জাতীয় পার্টির মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছেন চারজন। তাঁরা হলেন জাপা রংপুর মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসির, জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুজ্জামান জাহাঙ্গীর, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বোনের মেয়ে জাপার নির্বাহী সদস্য মেহেজেবুননেছা টুম্পা ও এরশাদের জ্যেষ্ঠপুত্র রাহগীর আল মাহী সাদ। 

দলীয় শৃঙ্খলা নষ্ট করলে ব্যবস্থা
গতকাল দুপুরে জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে এক অনির্ধারিত প্রেস ব্রিফিংয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহম্মদ কাদের বলেছেন, জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধ আছে। সবাইকে দলের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে হবে। কেউ দলের শৃঙ্খলা নষ্ট করতে চাইলে তার বিরুদ্ধে দলীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশনের আগেই সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ঠিক করা হবে।’ 

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা সাংবাদিকদের বলেন, ‘রংপুরে কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে। এর সঙ্গে জাতীয় পার্টির কেউ জড়িত নয়।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা