kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সীতাকুণ্ডে এক সপ্তাহে ৮ জনের অপমৃত্যু

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সীতাকুণ্ডে এক সপ্তাহে ৮ জনের অপমৃত্যু

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে হঠাৎ অপমৃত্যু বেড়েছে। উপজেলায় গত এক সপ্তাহে খুন, দুর্ঘটনা, আত্মহত্যায় মোট ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসব ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এদিকে এলাকায় এভাবে লাশের মিছিলে সাধারণ মানুষের মধ্যে উদ্বেগের সৃষ্টি হলেও পুলিশ বলছে আইন-শৃঙ্খলার কোনো অবনতি ঘটেনি, এসব বিচ্ছিন্ন ঘটনা।

থানা ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ডে হঠাৎই খুন, আত্মহত্যা, দুর্ঘটনায় প্রাণহানি উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে। যা এলাকাবাসীকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। সংশ্লিষ্টরা জানান, গত ২৮ আগস্ট সীতাকুণ্ডের সলিমপুরে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব দিদারুল আলম দিদারের পারিবারিক মালিকানাধীন লরির গ্যারেজে প্রকাশ্যে দিবালোকে খুন হয় লরি চালক মো. শাহাজাহান সাজু (৪৮), এর পর দিন ২৯ আগস্ট বিষপানে আত্মহত্যা করেন মাদামবিবিরহাটের বাসিন্দা মো. লোকমান (৬৫), একইদিন বাঁশবাড়িয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয় চালক গোলাম মোর্শেদ সবুজ (৩৫), ৩০ আগস্ট সীতাকুণ্ড পৌর সদরের চৌধুরীপাড়ায় ভাগ-বাটোয়ারার জেরে খুন হয় এক ছিনতাইকারী রেজাউল করিম (২৬), একইদিন নুনাছরায় ট্রাক চালক আমিনুল ইসলাম (২৫), ৩১ আগস্ট বারআউলিয়ায় ফুলতলায় জিরি সুবেদার শিপব্রেকিং ইয়ার্ডে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় মো. আমিনুল (৫০) ও তুষার চাকমা (৩৫) নামক দুই শ্রমিকের, পরদিন ১ সেপ্টেম্বর বাড়বকুণ্ড অনন্তপুর পাহাড়ী এলাকায় শফিকুল ইসলাম (২৫) নামক এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

এভাবে গত এক সপ্তাহে ৮ জনের অপমৃত্যুর পাশাপাশি আহত হয়েছে আরো অন্তত ২০ জন। যা এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। সলিমপুর ও পৌর সদর চৌধুরীপাড়ার দুটি খুন, বাড়বকুণ্ডে লাশ উদ্ধার ও জিরি সুবেদার শিপব্রেকিং ইয়ার্ডে দুইজন নিহত ও আরো ১৩ শ্রমিক আহতের বিষয়টি আলোচনায় স্থান পেয়েছে। কেউ কেউ বাড়বকুণ্ডে নিহত যুবকটিও হত্যাকাণ্ডের শিকার দাবি করে এক সপ্তাহে তিন খুনকে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) শামীম শেখ বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা ও আত্মহত্যার ওপর আমাদের কোনো হাত নেই। তবে খুনের ঘটনাগুলোতে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। লরি চালক হত্যা মাসুম ও রেজাউল করিমের হত্যাকারী হাসান বাদশা ইতিমধ্যে আদালতে আত্মসমর্পণ করেছে। তবে এসব ঘটনা আইন-শৃঙ্খলার অবনতির কিছু নয় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা