kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কেটে ফেলা হলো স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মীর হাত

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কেটে ফেলা হলো স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মীর হাত

ছবি: কালের কণ্ঠ

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী ইলিয়াস নোমানের (৩০) বাম হাতের কন্যুইয়ের ওপর থেকে কেটে ফেলা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে এ অপারেশন হয়। কিন্তু হাত কেটে ফেলা হলেও অতিরিক্ত রক্তক্ষরণজনিত কারণে এখনো শঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন ডাক্তাররা।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সারোয়ার জাহান ধনুকে গ্রেপ্তার করেছেন পুলিশ। এ ঘটনার প্রতিবাদে উপজেলার বখুরা-দৌলতপুর মোড় বাজারে আজ মঙ্গলবার বিকালে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা ইলিয়াস নোমানের ওপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি জানান। সোমবার কালের কণ্ঠের অনলাইনে এ সংক্রান্ত একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

উল্লেখ্য, উপজেলার যশরা গ্রামের মাওলানা সিরাজ উদ্দিনের ছেলে ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী ইলিয়াজ নোমান সোমবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে নিজ বাড়িতে যাওয়ার সময় যশরা আয়েশা হাসান দাখিল মাদরাসা এলাকায় ৫-৬ দুর্বৃত্ত রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এতে নোমানের বাম বাহু, মাথা ও চাপায় জখম হয়।

পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘটনার পর গফরগাঁও থানা পুলিশ স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সারোয়ার জাহান ধনুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। পরে রাতে আহত ইলিয়াস নোমানের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাত ৮-১০ জনের বিরুদ্ধে গফরগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেন।

গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার ভিত্তিতে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা