kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পুনর্ভবা পারাপারে নেই স্থায়ী ব্যবস্থা, দুর্ভোগ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৯:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পুনর্ভবা পারাপারে নেই স্থায়ী ব্যবস্থা, দুর্ভোগ

বাংলাদেশ সৃষ্টির পর সাপাহার উপজেলার কলমুডাঙ্গা সীমান্তে সীমান্তবর্তী জনবসতির শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে সীমান্ত রেখার পুনর্ভবা নদীর ওপারে একটি বিওপি ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। দেশ স্বাধীনের আজ প্রায় ৫০ বছর হতে চললেও ওই সীমান্তে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি সদস্যদের পারাপারের জন্য কোনো ব্রিজ, কালভার্ট কিংবা কোনো বেইলি ব্রীজ নির্মাণ হয়নি। ফলে দীর্ঘ দিন ধরে ওই সীমান্তের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা অতিকষ্টে তাদের প্রয়োজনীয় মালামাল সারা বছর নৌকায় করে পারাপার করে থাকেন। এতে যেমন সময় অপচয় হয় তেমনি বিভিন্ন কাজে দুঃখ-কষ্টের সীমা থাকে না তাদের।

জানা গেছে, দেশ স্বাধীন হওয়ার সাথে সাথে দেশের সীমান্তপথ রক্ষার্থে এলাকার অন্যান্য বিওপি ক্যাম্প স্থাপনের পাশাপাশি সাপাহার উপজেলার কলমুডাঙ্গা সীমান্তে অরক্ষিত এলাকায় পাহারা ও নজরদারি জোরদার করার জন্য বাংলাদেশ সরকার সেখানে একটি ক্যাম্প স্থাপন করে। ক্যাম্পটি কলমুডাঙ্গা গ্রামের মাঝখান দিয়ে প্রবাহমান পুনর্ভবা নদীর ওপারে (ভারত সীমান্তের দিকে) স্থাপন করায় যুগ যুগ ধরে ওই ক্যাম্পে নিয়োজিত জওয়ানরা তাদের জরুরি কোনো কাজে কিংবা নদীর পূর্ব অংশে অতিকষ্টে নৌকাযোগে যাতায়াত করে থাকে। এতে করে অনেক সময়ে নদীর এপারে (পূর্ব অংশে) চোরাকারবারিদের পিছু ধাওয়া অথবা গ্রামবাসীর অন্য কোনো বিপদে এগিয়ে আসতে তাদের বেগ পেতে হয়। 

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার দেশের ক্ষমতাভার গ্রহণ করার পর ওই গ্রামের ক্যাম্প এলাকা হতে প্রায় দেড় কিলোমিটার ভাটির দিকে গ্রামবাসীদের উৎপাদিত ফসল অতিসহজে আনা নেওয়ার জন্য একটি ব্রিজ নির্মাণ করেন। যার উপকার গ্রামের প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষ পাচ্ছেন। অবশিষ্ট ৪০ শতাংশ মানুষ ও সরকারি কাজে নিয়োজিত বিজিবি সদস্যরা তাদের দুঃখ-কষ্ট লাঘব করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের পরিদর্শনপূর্বক জরুরি ভিত্তিতে ক্যাম্প এলাকায় একটি ব্রিজ নির্মাণের জোর দাবি জানিয়েছেন। 

সাপাহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কল্যাণ চৌধুরীর সাথে কথা হলে বিষয়টি শুনে বিজিবি সদস্য ও এলাকায় বসবাসকারী জনগণের কথা চিন্তা করে তিনিও সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করবেন বলে জানিয়েছেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা