kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বড়লেখায় গৃহবধূর মৃত্যুকে ঘিরে রহস্য, স্বামী আটক

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বড়লেখায় গৃহবধূর মৃত্যুকে ঘিরে রহস্য, স্বামী আটক

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার গঙ্গারজল গ্রামে ইমা বেগম (২০) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ইমার স্বজনদের অভিযোগ, তার স্বামী তাকে নির্যাতনের পর হত্যা করেছে।

আজ সোমবার দুপুরে পুলিশ ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজারের ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এই ঘটনায় ইমার স্বামী জামাল উদ্দিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। ইমা বেগম ৭ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা ছিলেন বলে জানা গেছে।

থানা পুলিশ ও নিহত ইমার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সুজানগর ইউপির বরথল গ্রামের ইসলামের উদ্দিনের মেয়ে ইমা বেগমের সঙ্গে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে সদর ইউপির গঙ্গারজল গ্রামের রহিম উদ্দিনের ছেলে জামাল উদ্দিনের বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েকমাস পর জামাল উদ্দিন বিদেশ যাওয়ার জন্য ইমাকে বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য চাপ দেয়। এতে অস্বীকৃতি জানালে জামাল ইমার ওপর নির্যাতন চালাতেন। এরইমধ্যে অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পড়েন ইমা। ঘটনার কয়েকদিন আগেও জামাল ইমাকে মারধর করেন।

এদিকে গতকাল রবিবার (০১ সেপ্টেম্বর) রাতের খাবার খেয়ে ইমা বেগম স্বামীর সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে ইমার স্বামী ঘুম থেকে উঠে তাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পান। খবর পেয়ে সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিছানার ওপর শোয়ানো অবস্থায় ইমার লাশ উদ্ধার করে। পরে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে দুপুর ১২ টায় লাশ মর্গে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইয়াছিনুল হক বলেন, ‘বিছানার ওপর শোয়ানো অবস্থায় ইমার লাশ পাওয়া গেছে। শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। ইমার স্বামীকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা