kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নওগাঁ ডিসির নম্বর ক্লোন করে চেয়ারম্যানের নিকট চাঁদা দাবি

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নওগাঁ ডিসির নম্বর ক্লোন করে চেয়ারম্যানের নিকট চাঁদা দাবি

নওগাঁ জেলা প্রশাসক হারুন-অর-রশীদের সরকারি মুঠোফোন নাম্বার ক্লোন করে উন্নয়ন প্রকল্প দেওয়ার নামে মান্দা উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট এক লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি জানার পর আজ সোমবার বেলা ১১টায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সর্তকতামূলক একটি স্ট্যাটাস দিয়ে সবাইকে সর্তক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন নওগাঁর ডিসি।

মান্দা উপজেলা চেয়ারম্যান সরদার জসিম উদ্দিন জানান, রবিবার বেলা ১১টার দিকে আমার ব্যক্তিগত মুঠোফোনে জেলা প্রশাসকের সরকারি নাম্বার থেকে ফোন আসে। এ সময় বলা হয়, আপনার জন্য একটা সুখবর রয়েছে। আপনার নামে ২৫ মেট্রিকটন কাবিখা ও ২৫ মেট্রিকটন টিআর বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এ জন্য প্রকল্প দাখিলসহ এক লাখ টাকা বিকাশ দিতে হবে আপনাকে।’ তিনি বলেন, বিষয়টি আমি সঙ্গে সঙ্গে জেলা প্রশাসক মহোদয়কে অবহিত করি।

উপজেলা চেয়ারম্যান আরো বলেন, যারা ডিসির ফোন নাম্বার ক্লোন করে এ ধরণের কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন। এই চক্রের ফাঁদে পড়ে অনেকেই সরল বিশ্বাসে টাকা দিয়ে দিতে পারে। তাই কেউ যেন এই চক্রের খপ্পরে না পড়ে সে ব্যাপারে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানান তিনি।

এদিকে ঘটনাটি জানার পর এ বিষয়ে সবাইকে সতর্ক করেছেন নওগাঁ জেলা প্রশাসক হারুন-অর-রশীদ। ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে তিনি লিখেছেন, জেলা প্রশাসক নওগাঁর সরকারি অথবা ব্যক্তিগত নাম্বার বা অন্য কোনো নাম্বার থেকে জনপ্রতিনিধিদের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের বিশেষ বরাদ্দ দেওয়ার নামে ফোন দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। এরকম ফোনে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

স্ট্যাটাসে তিনি আরো উল্লেখ করেন, জেলা প্রশাসক নওগাঁ কখনও এরূপ ফোন দেননি এবং ভবিষ্যতেও দেবেন না। অধিকন্তু দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় বিশেষ বরাদ্দের টিআর, কাবিখা বন্ধ করে দিয়েছে। কাজেই বিভ্রান্ত না হয়ে এমন কোনো ফোন পেলে সঙ্গে সঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বা থানায় অবহিত করতে অনুরোধ করা হলো।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা