kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শিশু জন্মালেই নিবন্ধন, গাছের চারা আর ফুলের তোড়া

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিশু জন্মালেই নিবন্ধন, গাছের চারা আর ফুলের তোড়া

নতুন জন্ম হওয়া শিশুর জন্ম নিবন্ধন যথাসময়ে করাতে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা সৈয়দ আশরাফুজ্জামান একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রতিদিন নতুন কোনো শিশুর জন্ম হলেই উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি গাছের চারা ও ফুলের তোড়া তার বাবা-মাকে দিয়ে শিশুটির জন্ম নিবন্ধন সম্পন্ন করার বার্তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। শিশুর জন্ম ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের মধ্যে হলে সেই বাড়িতে গিয়ে ইউএনও নিজেই গাছের চারা রোপণ করে এবং ফুলের তোড়া পৌঁছে দিচ্ছেন। আর পৌর শহরের বাইরে হলে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দিয়ে কাজটি করাচ্ছেন।

গত ১ সেপ্টেম্বর ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের হাসপাতাল পাড়ার কাশেম ও বিউটি দম্পতির নতুন জন্ম হওয়া শিশু হুসাইনকে ইউএনও গাছের চারা ও ফুলের তোড়া দিয়ে এই কার্যক্রম শুরু করেন। আজ সোমবার পৌরশহরের সারুটিয়া মহল্লার রফিকুল ও মায়া দম্পতির নতুন শিশু রাকার জন্ম উপলক্ষে গাছের চারা রোপণ করেন ইউএনও। এদিকেও ইউএনওর এই উদ্যোগটি দেশে নতুন না হলেও পাবনা জেলাতে এই প্রথম। 

ইউএনও সৈয়দ আশরাফুজ্জামান বলেন, মূলত তিনটি বিষয় মাথায় রেখে তিনি এই উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রথমত শিশুটির জন্মের সঙ্গে সঙ্গে তার মা-বাবা যেন কোনো লুকোচুরি না করে প্রকৃত দিনক্ষণে সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করে সেটা সম্বন্ধে মা-বাবাকে সচেতন করা। এতে একটি শিশুর বার বার জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন নিয়ে ভোগান্তি থেকে মুক্তি পাবে সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও শিশুর অভিভাবক। দ্বিতীয়ত শিশুটি বড় হয়ে এই বিষয়টি জেনে নিজেকে উপযুক্ত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে উৎসাহ পাবে। তৃতীয়ত গাছের চারা বড় হয়ে ওই শিশুর পরিবারকে আর্থিক সচ্ছলতা দান করবে।

ইউএনও আরো বলেন, এই উদ্যোগটি সম্পূর্ণভাবে বাস্তবায়ন হলে উপজেলায় প্রতিমাসে গড়ে দুই হাজার করে বৃক্ষ রোপণ হবে। এ ছাড়া উদ্যোগটি বাল্যবিবাহ রোধ, মা ও শিশুর সুস্বাস্থ্যে সহায়ক হবে এবং অপরিপক্ক বয়সে মেয়েদের গর্ভধারণ রোধ করবে। তবে এ জন্য এই উপজেলায় পরবর্তীতে দায়িত্ব নেওয়া কর্মকর্তাদেরও এ কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান গোলাম হাফিজ রঞ্জু বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই। এই উদ্যোগকে সফল করতে উপজেলা পরিষদ থেকে সকল প্রকার সহযোগিতা করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা