kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মেঘনায় বিকল হওয়া স্টিমার পিএস টার্ন সচল হয়নি এখনো

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৯:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেঘনায় বিকল হওয়া স্টিমার পিএস টার্ন সচল হয়নি এখনো

চাঁদপুরের মেঘনায় বিকল হয়ে যাওয়া স্টিমার পিএস টার্ন এখনো সচল হয়নি। শতাধিক যাত্রী ও মালামাল নিয়ে রাজধানীর সদরঘাট থেকে বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ যাবার পথে গত মধ্যরাতে ইঞ্জিন বিকল হয়। প্রায় শত বছরের পুরনো এই স্টিমারটি এখন চাঁদপুর ঘাটে আটকা পড়ে আছে। এতে বেশির ভাগ যাত্রী নেমে গেলেও এখনো অনেক যাত্রী এই স্টিমারে রয়েছেন।

গতরাত থেকে আজ রবিবার বিকেল পর্যন্ত চাঁদপুরে আটকেপড়া এসব যাত্রী তাদের দুর্ভোগের কথা জানিয়েছেন। তবে জেলা প্রশাসন, চাঁদপুর পৌরসভা, জেলা ও নৌপুলিশ এগিয়ে গিয়ে অনেক যাত্রীকে বিকল্প পথে যাবার ব্যবস্থা করে দিয়েছে।

স্টিমারের কর্মকর্তা মো. আরিফ জানান, রাজধানীর সদরঘাট থেকে গত শনিবার সন্ধ্যায় এটি ছেড়ে আসে। এ সময় স্টিমার পিএস টার্ন-এ ১২৪ জন যাত্রী ও মালামাল ছিল। চাঁদপুর-বরিশাল, পিরোজপুর ও বাগেটহাটের মোড়েলগঞ্জ পর্যন্ত এর যাত্রা পথ ছিল। কিন্তু চাঁদপুর ঘাট ত্যাগের একটু পরই ডান পাশের প্যাডেলের লাম্ব ভেঙে যায়।

অন্যদিকে পিএস টার্ন নামের এই স্টিমারের ইনচার্জ মাস্টার মো. শাহজাহান জানান, ডাক পাশের প্যাডেলের লাম্ব নামে একটি যন্ত্রাংশ ভেঙে যাবার কারণে স্টিমারটি বিকল হয়ে যায়। তিনি আশা করছেন, আগামী ২-১ দিনের মধ্যে ঢাকা থেকে নতুন যন্ত্রাংশ নিয়ে এসে প্রতিস্থাপন করা হলে ফের এটি চালু করা সম্ভব হবে। 

স্টিমারে আটকেপড়া বেশ কয়েকজন যাত্রীরা জানান, পরিবারের সদস্য এবং সঙ্গে মালামাল থাকায় তারা অন্য মাধ্যমেও যেতে পারছেন না। ফলে তাদের দুর্ভোগ ছাড়িয়ে যাচ্ছে। তবে কয়েকজন যাত্রী জানান, রবিবার রাতে বিকল্প লঞ্চে তারা চাঁদপুর ত্যাগ করার চেষ্টা করবেন।  

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত প্রায় একমাস ধরে অপর স্টিমার পিএস মাসহুদ চাঁদপুরে বিকল হয়ে পড়ে আছে। শত বছরের পুরোনো এই স্টিমারটিও সচল করার কোনো উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা