kalerkantho

কলেজের ওয়াশরুম থেকে বিষ হাতে বহিরাগত আটক

ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি    

২৬ আগস্ট, ২০১৯ ০২:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলেজের ওয়াশরুম থেকে বিষ হাতে বহিরাগত আটক

শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলা সখিপুর থানাধীন হাজি শরীয়তুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে মো. নিরব হোসেন মোল্লা (১৯) নামের এক যুবককে বিষের প্যাকেট হাতে আটক করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

গতকাল রবিবার বেলা ১টার দিকে কলেজের চারতালা ভবনের ওয়াশরুম থেকে আটক করা হয়। পরে তাকে সখিপুর থানা পুলিশ হেফাজতে পাঠানো হয়।

আটক নিরব ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর ইউনিয়নের মাদু সরদারের কান্দি আ. হাকিম মোল্লার ছেলে। অন্যদিকে মারিয়া আক্তার একই মাদু সরদারের কান্দি হাকিম মোল্লার মেয়ে ও হাজি শরীয়তুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্রী।

কলেজের শিক্ষার্থীরা ও প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, রবিবার দুপুরে কলেজের চারতলা ভবনের ওয়াশরুমে এক বহিরাগত এসে বিষ হাতে নিয়ে খাওয়ার চেষ্টা করছিল। তা আমরা দেখে ফেলি। আমরা সঙ্গে সঙ্গে তাকে ধরে অধ্যক্ষ স্যারের কাছে নিয়ে যাই। 

পরে জানতে পারি যুবকটি আমাদের কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী মারিয়া আক্তারের সঙ্গে প্রেমের প্রস্তাব নিয়ে ঘুরছিল। কিন্তু এতে মারিয়া কোনো সাড়া দেয়নি। সাড়া না পেয়ে নিরব বিষ খেতে যাচ্ছিল।

এ বিষয়ে আটক নিরব বলেন, আমি দুই বছর যাবৎ প্রেম করি অহন অস্বীকার করে হেলিগা এই কাম করছি।

মারিয়া আক্তার বলেন, ও আমাকে পথে-ঘাটে বিরক্ত করতো। আমি ওর সঙ্গে কথা বলতাম না। ও অনেক চেষ্টা করতো কথা বলার জন্য। নিরবকে কখনোই ভালোবাসতাম না। এখন নিরব আত্মহত্যার ভয় দেখিয়ে প্রেম করার চেষ্টা করছেন।

কলেজটির অধ্যক্ষ আবু বাশার আল আজাদ বলেন, দুপুর বেলা কলেজ শিক্ষার্থীরা বহিরাগত নিরব নামের এক যুবককে ধরে আনেন। শিক্ষার্থীরা বলেন, নিরব ওয়াশরুমে গিয়ে বিষ খাচ্ছিল। এমন অবস্থায় তারা ধরে ফেলে এতে করে আর নিরব বিষ খেতে পারেনি। পরে বিষয়টি নিয়ে কি করব বুঝতে না পেরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করি।

সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনামুল হক এনাম বলেন, বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষের অভিভাবক ডাকা হয়েছে। তারা আসলে আমরা পরবর্তী ব্যবস্থা নেব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা