kalerkantho

বাসে নারীর সঙ্গে অশালীন আচরণ, ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে রক্ষা

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি    

২৩ আগস্ট, ২০১৯ ১৪:১৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাসে নারীর সঙ্গে অশালীন আচরণ, ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে রক্ষা

ভারত সফর শেষে বাংলাদেশের বুড়িমারি হয়ে খালেক এন্টারপ্রাইজ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে বাড়ি ফিরছিলেন ঢাকার  মিরপুর এলাকার এক দম্পতি। পথে অপর এক যাত্রীর অশালীন আচরণের শিকার হন ওই দম্পতি। পরে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে অশালীন আচরণের হাত থেকে মেলে রক্ষা।

গতরাত সাড়ে ৩টার দিকে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার মাঝিড়া এলাকায় স্থানীয় এক হাইওয়ে হোটেলের সামনে থেকে অশালীন আচরণের অভিযোগে সালাম সোহেল (৪২) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে শাজাহানপুর থানা পুলিশ। ঢাকার উত্তর বাড্ডা এলাকার রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী তিনি।

অশালীন আচরণের শিকার নারীটির স্বামী বাপ্পী জানান, তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের (বিটিভি) রিপোর্টার। সস্ত্রীক ভারতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে বুড়িমারি হয়ে বাসে করে ফিরছিলেন ঢাকায়। পথে অপর আট যাত্রী হৈচৈ করছিলেন। এতে অপর যাত্রীরা বিরক্তবোধ করছিলেন। তার স্ত্রী তাদেরকে হৈচৈ করতে নিষেধ করেন। কিছুক্ষণ তারা নীরব ছিলেন। এর কিছুক্ষণ পর সালাম সোহেল ওই দম্পতির সঙ্গে অশালীন আচরণ শুরু করেন।

ওই নারী জানান, বুড়িমারি থেকে বগুড়ার শাজাহানপুর পর্যন্ত লোকটি তাদেরকে বিরক্ত করছিলেন। অশালীন কথাবার্তা, অঙ্গভঙ্গি এবং এমন আচরণ করছিলেন যাতে তিনি অস্বস্তি বোধ করছিলেন। এরপর ভোররাত সোয়া ৩টার দিকে শাজাহানপুর উপজেলার স্থানীয় এক হোটেলে বাসটি যাত্রাবিরতি করে। বাস থেকে নামার পরও লোকটি বিরক্ত করতে থাকেন। এমনকি ঢাকায় পৌঁছালে দেখে নেবেন বলে হুমকিও দেন। বাধ্য হয়ে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে শাজাহানপুর থানা পুলিশ এসে  লোকটিকে আটক করেন।

আটক সালাম সোহেলের অপর সহযাত্রীরা জানান, তারা ১০ বন্ধু একসঙ্গে ভারতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। দুজন আকাশ পথে এবং অপর আটজন সড়ক পথে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন। আসনে বসার পর ভারতের দর্শনীয় স্থানগুলো নিয়ে তারা কথা বলছিলেন। বন্ধুদের মধ্যে সালাম সোহেল শারীরিকভাবে স্থুলকার হওয়ায় তার কথা একটু জোরে শোনা যাচ্ছিল। এতে নাকি ওই নারী বিরক্ত হচ্ছিলেন। কিন্তু ওই নারী  যেভাবে নিষেধ করেছেন মূলত সেটিই ছিল আপত্তিকর। তিনি সবাইকে উদ্দেশ্য করে একাধিকবার 'স্টুপিড পাবলিক' উচ্চারণ করেছেন। এতে সালাম সোহেল একটু রেগে গিয়েছিলেন। কিন্তু এই সামান্য ঘটনা এত বড় আকার ধারণ করবে তা তাদের জানা ছিল না।

থানার ওসি আজিম উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে উভয় পক্ষকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছিল। পরে উভয়ের মধ্যে আপোষ-মীমাংসা হওয়ায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা