kalerkantho

ভাঙ্গুড়ায় বয়স্ক ভাতার অর্থ আত্মসাৎকারী মাঠকর্মীকে বদলি

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি   

২৩ আগস্ট, ২০১৯ ০১:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভাঙ্গুড়ায় বয়স্ক ভাতার অর্থ আত্মসাৎকারী মাঠকর্মীকে বদলি

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় একজন বৃদ্ধের বয়স্ক ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে উপজেলা সমাজসেবা অফিসের মাঠকর্মী মতিউর রহমানকে জেলার আটঘরিয়া উপজেলায় বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সংশ্লিষ্ট দপ্তর এ সংক্রান্ত একটি আদেশ জারি করে। অভিযুক্ত মতিউর ও ভুক্তভোগী মাজেদ মণ্ডল দুজনই উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের বেতুয়ান গ্রামের বাসিন্দা।
 
জানা যায়, ভাঙ্গুড়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসের মাঠকর্মী মতিউর রহমান উপজেলার বেতুয়ান গ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধ মাজেদ মণ্ডলের বয়স্কভাতার কার্ড আটকে রেখে গত মার্চ মাসে এবং জুলাই মাসে দুইবার দেড় হাজার করে টাকা হাতিয়ে নেন। প্রথমে ভাতা বন্ধ করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে মতিউর বিষয়টি গোপন রাখতে মাজেদ মণ্ডলকে বাধ্য করেন। সম্প্রতি বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য সাহেব আলীর পরামর্শে গত ১ আগস্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে অর্থ আত্মসাতের বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করে মাজেদ মণ্ডল।
 
এ নিয়ে গত ৬ আগস্ট কালের কণ্ঠ প্রিয় দেশ পাতায় ‘ভাঙ্গুড়ায় বয়স্ক ভাতায় ভাগ বসালেন মাঠকর্মী’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়। এদিকে অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইউএনও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামের ওপর মতিউরের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্তভার অর্পণ করেন। তদন্তে মতিউরের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে ইউএনও এবং জেলা সমাজসেবা অফিসে এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রেরণ করেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা।
 
এদিকে তদন্ত কার্য শেষে মাজেদ মণ্ডল মতিউরের পরিবারের পীড়াপীড়িতে মতিউরকে মাপ করে দিয়ে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা বরাবরে একটি লিখিত আবেদন করেন। এতে অভিযুক্ত মাঠকর্মী মতিউরকে গুরুতর শাস্তি প্রদান না করে তাকে শুধু বদলি করে সংশ্লিষ্ট দপ্তর।
 
এ বিষয়ে অভিযোগে তদন্তকারী কর্মকর্তা ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জাহিদুল ইসলাম বলেন, মাঠকর্মী মতিউরের বিরুদ্ধে এলাকার মানুষের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা ও স্থানীয় বাসিন্দা হওয়ায় প্রভাব খাটিয়ে অনিয়ম করার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। কিন্তু ভাতার অর্থ আত্মসাতের বিষয়ে অভিযোগকারী অভিযোগ প্রত্যাহার করায় মতিউরের বিরুদ্ধে আইনানুগ কোনো শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তবে স্থানীয় প্রভাব খাটিয়ে কিছু অনিয়ম করায় তাকে বদলি করা হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা