kalerkantho

এখনো সততা আমাদের ছেড়ে যায়নি!

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২২ আগস্ট, ২০১৯ ১৪:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এখনো সততা আমাদের ছেড়ে যায়নি!

ভুলে নিজের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অন্যের লাখ টাকা জমা! তা-ও আবার প্রবাস থেকে পাঠানো। তাই ইচ্ছে করলে নগদ তুলে তা হাতিয়েও নিতে পারতেন। কিন্তু না, মোটা অঙ্কের টাকাটা ফিরিয়ে দিয়ে সততার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের মনির হোসেন ভূঁইয়া। গতকাল বুধবার শেষ বিকেলে আলোচিত এমন ঘটনার সাক্ষী হলেন সোনালী ব্যাংক, ফরিদগঞ্জ শাখার কর্মকর্তাসহ উপস্থিত গ্রাহকরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সৌদি আরব প্রবাসী এক ব্যক্তি তার স্ত্রী সানজিদা আক্তারের নামে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি শাখার সোনালী ব্যাংকে ৯৯ হাজার ৯ শ টাকা পাঠান। কিন্তু বিপুলপরিমাণ এই টাকা ব্যাংকের ওই শাখার নির্ধারিত গ্রাহকের হিসেবে জমা না হয়ে সোনালী ব্যাংক, ফরিদগঞ্জ শাখার গ্রাহক মনির হোসেন ভূঁইয়ার হিসেবে জমা হয়। 

এই নিয়ে টাকা জমার খুদেবার্তা মুঠোফোনে পেয়ে দ্রুত ব্যাংকে ছুটে যান মনির হোসেন ভূঁইয়া। বিষয়টি ব্যাংকের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমাম হোসেনকে খতিয়ে দেখার অনুরোধ জানান তিনি। পরে খোঁজ নিয়ে জানা গেল, প্রবাস থেকে যিনি টাকা পাঠালেন- তিনি হিসেব নম্বর লিখতে গিয়ে গড়মিল করেছেন। ফলে তার ভুলের কারণে স্ত্রী সানজিদা আক্তারের টাকা চলে যায় মনির হোসেন ভূঁইয়ার হিসাবে।

সোনালী ব্যাংক, চাঁদপুর আঞ্চলিক কার্যালয়ের কর্মকর্তা গোলাম হোসেন টিটু বলেন, গ্রাহকের সামান্য ভুল বা অসতর্কতার কারণে এমনটি হয়েছে। তবে মনির হোসেন ভূঁইয়া নামে একজন গ্রাহকের সততার জন্য খুব অল্প সময়ে প্রকৃত গ্রাহক তার টাকা পেল।  

ফরিদগঞ্জ উপজেলায় পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের পরিদর্শক মনির হোসন ভূঁইয়া। এই বিষয় মনির হোসেন বলেন, সরকারের দেওয়া বেতনের টাকায় বেশ স্বাচ্ছন্দে আমার সংসার চলে। সুতরাং অন্যের টাকা ভোগের পাপ কাঁধে নিতে চাইনি, ফিরিয়ে দিয়েছি। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা