kalerkantho

গফরগাঁওয়ে হত্যা মামলার আসামি 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

বিদেশি পিস্তল, গুলি ও হেরোইন উদ্ধার

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২২ আগস্ট, ২০১৯ ০৮:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গফরগাঁওয়ে হত্যা মামলার আসামি 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে পাগলা থানা পুলিশ ও ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যৌথ অভিযানের সময় কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এখলাছ উদ্দিন (৩২) নামে একজন আহত হয়। পরে তাঁকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার দিবাগত রাত ১টা ৩৫ মিনিটে উপজেলার নিগুয়ারী ইউনিয়নের চাকুয়া দাড়িয়া মোড়ে। নিহত এখলাছ উদ্দিন চাকুয়া গ্রামের নূরুল ইসলামের ছেলে। তার বিরুদ্ধে গফরগাঁও, পাগলা ও ত্রিশাল থানায় ৩টি ডাকাতি, ১টি হত্যা ও ২টি মাদক মামলা রয়েছে।

থানা সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি উপজেলার টাঙ্গাব ইউনিয়নের ডাকবাংলা এলাকায় এক অটোবাইক চালকের লাশ উদ্ধার করে পাগলা থানা পুলিশ। ওই মামলার এজাহার নামীয় প্রধান আসামী চাকুয়া গ্রামের নূরুল ইসলামের ছেলে এখলাছ উদ্দিনকে ধরতে বুধবার রাত ১টা ৩৫ মিনিটের দিকে পাগলা থানা পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের যৌথ অভিযানের সময় চাকুয়া দাড়িয়া মোড়ে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এখলাছ উদ্দিন গুরুতর আহত হয়। এ সময় একটি বিদেশী পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি ও ২০০গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করে পুলিশ। পরে আহত এখলাছ উদ্দিনকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পাগলা থানার ওসি তদন্ত (চলতি দায়িত্ব) ফায়েজুর রহমান বলেন, এখলাছ উদ্দিন একজন চিহ্নিত ডাকাত। তার বিরুদ্ধে গফরগাঁও, পাগলা ও ত্রিশাল থানায় ৩টি ডাকাতি, ১টি হত্যা ও ২টি মাদক মামলা রয়েছে। বুধবার রাতে এখলাছ উদ্দিনকে ধরতে যৌথ অভিযান চালানোর সময় চাকুয়া দাড়িয়া মোড়ে বন্দুকযুদ্ধে আহত হলে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা