kalerkantho

চাঁদা না পেয়ে বলাৎকারের চেষ্টা, লজ্জায়-ঘৃণায় কৃষকের 'আত্মহত্যা'

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, গাজীপুর    

২১ আগস্ট, ২০১৯ ১০:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদা না পেয়ে বলাৎকারের চেষ্টা, লজ্জায়-ঘৃণায় কৃষকের 'আত্মহত্যা'

গাজীপুরের শ্রীপুরে নিজ বাড়ি থেকে এক কৃষকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে চরম অবমাননাকর পরিস্থিতির মুখে পড়ে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। অভিযোগে জানা গেছে, দাবি করা চাঁদা না পেয়ে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে নিরীহ এক কৃষককে বলাৎকারের চেষ্টা করে চিহ্নিত কয়েকজন চাঁদাবাজ। একপর্যায়ে তাঁকে উলঙ্গ করে বলাৎকার চেষ্টার ভিডিও ধারণ করে তাঁরই ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে। চাঁদাবাজরা এখানেই থেমে থাকেনি, দাবি করা চাঁদা না পেলে ধারণ করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুক) ছড়িয়ে দেওয়ারও হুমকি দেয়।

এ ঘটনার পরদিন লজ্জায়-ঘৃণায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই কৃষক। এ ঘটনা ঘটে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটী ইউনিয়নের টেপিরবাড়ী গ্রামে। গত সোমবার সকালে বসতঘরের বারান্দা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় জামাল উদ্দিন (৪৫) নামে ওই কৃষকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি টেপিরবাড়ীর আহাদ আলীর ছেলে। জামাল দীর্ঘদিন বিদেশে চাকরি করতেন। পরে দেশে ফিরে কৃষিকাজকে পেশা হিসেবে বেছে নেন।

তাঁর ছেলে রাকিব হাসান হৃদয় জানান, প্রতিবেশী পিন্টু, শাওন, সাদেক, সজল, রনিসহ আরো কয়েকজন চিহ্নিত চাঁদাবাজ তাঁর বাবার কাছে বেশ কয়েক দিন ধরেই মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করে আসছিল। দাবি করা চাঁদা না দেওয়ায় ওই চাঁদাবাজদল বাড়ির পাশের সড়ক থেকে গত রবিবার জামালকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর পার্শ্ববর্তী বৃন্দাবন নামে শালবনের ভেতর নিয়ে তাঁর সঙ্গে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। একপর্যায়ে তাঁর বাবাকে উলঙ্গ করে উল্লাস করে চাঁদাবাজরা এবং বলাৎকারের চেষ্টা চালায়। আর ওই দৃশ্য তাঁর বাবারই মোবাইল ফোনে ধারণ করে দুর্বৃত্তরা। তারা দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।

হৃদয় আরো জানান, চাঁদাবাজদের হাত থেকে ছাড়া পেয়ে তাঁর বাবা বাড়ি ফিরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। এরপর স্বজনরা জানতে চাইলে ঘটনাটি তাদের জানান। ঘটনার পর থেকে ঘর থেকে বের হননি। পরদিন গত সোমবার সকালে বসতঘরের বারান্দায় আড়ার সঙ্গে লুঙ্গিতে ফাঁস লাগানো মরদেহ উদ্ধার হয় জামালের।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা