kalerkantho

ব্রহ্মপুত্র নদের বুকে ভাসমান সবজির ভেলা

উলিপুরে ভাসমান বেডে সবজি চাষ

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি   

২০ আগস্ট, ২০১৯ ২২:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উলিপুরে ভাসমান বেডে সবজি চাষ

সারি সারি বেডে ভেসে বেড়াচ্ছে লালশাক, পাটশাক, লাউ, ঢেঁড়স, বরবটি, গিমাকলমির ভেলা। ব্রহ্মপুত্র নদের দুধকুমোর কোলায় ভেসে আছে সবুজের সবজি ক্ষেত। ব্রহ্মপুত্র নদের পরিত্যক্ত এ স্থানে সবজি চাষ করতে পেরে কৃষকরাও খুশি। কীটনাশক ছাড়াই চাষাবাদ করা হচ্ছে এসব ভাসমান সবজি।

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলায় হাতিয়া ইউনিয়নের নতুন অনন্তপুর ব্লকের কামারপাড়া গ্রামের ব্রহ্মপুত্র নদের দুধকুমার কোলায় ভাসমান বেডে সবজি ও মসলা চাষ এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

সরেজমিনে মঙ্গলবার সকালে গিয়ে কথা হয় কৃষক নুর আমিনের সাথে। তিনি বলেন, পরিত্যক্ত এ জায়গায় কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় ভাসমান বেডে সবজি চাষ করছি। ইতোমধ্যে সবজিগুলো ডালপালা মেলে চড়িয়ে পড়ছে। আশা করছি সবজি বিক্রি করে আর্থিক লাভবান হবো।

ওই এলাকার আজিম আলী, রফিকুল ইসলাম, আনিসুর রহমান, আ. মমিন, মোছা. রজিনা বেগমসহ ৬ জন কৃষক প্রত্যেকে ৪টি করে ২৪টি ভাসমান বেডে সবজি চাষ করছেন। এসব কৃষক জানান, কচুরিপানাসহ জলজ আগাছা স্তুপীকৃত করে বেড তৈরি করে সবজি চাষ করা হচ্ছে। কোনো প্রকার রাসায়নিক সার ছাড়াই সম্পূর্ণ জৈবিক উপায়ে উৎপাদিত এ সকল সবজি খেতেও খুব সুস্বাদু।

আগামীতে ভাসমান বেডে সবজি চাষ আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করছেন এসব কৃষক। আর সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করছেন ওই ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সায়িদুর রহমান। এ ছাড়া উপজেলার দড়িকিশোর পুর, শুকদেব, তবকপুরসহ দূর্গাপুর ব্লকের ভাসমান বেডে লতা জাতীয় ও লতাবিহীন সবজি চাষ ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। 

উপজেলা কৃষি অফিসার সাইফুল ইসলাম বলেন, ভাসমান বেডে সবজি ও মসলা চাষ গবেষণা, সম্প্রসারণ ও জনপ্রিয়করণ প্রকল্পের আওতায় কৃষি বিভাগের নিবিড় তত্ত্বাবধানে নদীতে ভাসমান বেডে সবজি চাষ করা হচ্ছে। এ ছাড়া সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ধান চারাবীজ সরবরাহের জন্য ভাসমান বেডে আপদকালীন রোপাআমন বীজতলা তৈরি করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা